অক্টোবর ২৫, ২০২১ ০৪:৪৫ অপরাহ্ন



অক্টোবর / ২৫ / ২০২১


ডেস্ক রিপোর্ট

আপডেটের : অক্টোবর / ২৫ / ২০২১

মানহীন ও ভেজাল ওষুধ উৎপাদন বন্ধে গাইডলাইন হচ্ছে: মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান



ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. মাহবুবুর রহমান বলেছেন, ওষুধ উৎপাদন খাতে বাংলাদেশ যথেষ্ট অগ্রগতি অর্জন করেছে। আমাদের চাহিদার প্রায় ৯৭ শতাংশ ওষুধ এখন দেশেই উৎপাদিত হচ্ছে, বাকী ৩ শতাংশ আমদানী হচ্ছে। অন্যদিকে, ওষুধ শিল্পের ব্যাপক প্রসারের ফলে বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে প্রায় ১৫৬টি দেশে ওষুধ রপ্তানী হচ্ছে। 

বৃহস্পতিবার ওষুধের মান নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে দু’টি খসড়া নীতিমালা প্রণয়ন বিষয়ক সেমিনারে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। 

নগরীর একটি হোটেলে আয়োজিত এ সেমিনারে ৩টি খসড়া প্রস্তাবনা উপস্থাপন করা হয়। ইউএসপির চিফ অব পার্টি ডা. সৈয়দ ওমর খৈয়াম পুরো অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। সেমিনারে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় বিএমএ মহাসচিব ইহতেশামুল হক চৌধুরী, ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মইনুল হক, শাবিপ্রবির অধ্যাপক মিজানুর রহমান, উইমেন্স মেডিকেল কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল ফজলুর রহিম কায়সার, নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, স্বাস্থ্য পরিচালক হিমাংশু লাল রায়, সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল, সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকবাল সিদ্দিকী, সিনিয়র সাংবাদিক আল আজাদ, কেমিস্ট ও ড্রাগিস্টস এসোসিয়েশনের বিভাগীয় সভাপতি মইনুল হক চৌধুরী ও ক্যাব এর সভাপতি জামিল চৌধুরী প্রমুখ। 

জেনারেল মাহবুব আরও বলেন, আমাদের ওষুধ শিল্পের আকার এখন ২৫ হাজার কোটি টাকার। গার্মেন্টের পরে এখন ওষুধ রপ্তানী খাত এখন যথেষ্ট সম্ভাবনাপূর্ণ। তবে অধিকাংশ মানসম্পন্ন ওষুধের পাশাপাশি কিছু কিছু মানহীন এবং ভেজাল ওষুধ দেশের অভ্যন্তরীণ বাজারে চলে আসছে, যা জনস্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। তাই সকল ওষুধের মান নিয়ন্ত্রণ আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ লক্ষে দুটি গাইডলাইনের খসড়া তৈরি হয়েছে। বিভাগীয় ও জাতীয় পর্যায়ে সংশ্লিষ্টদের সাথে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে এগুলো চ‚ড়ান্ত করা হবে। 


সিলেট