জানুয়ারি ২৪, ২০২২ ০২:৫৪ পূর্বাহ্ন



জানুয়ারী / ২৪ / ২০২২


নিজস্ব প্রতিবেদক

আপডেটের : জানুয়ারী / ২৪ / ২০২২

জগন্নাথপুরে এক শিক্ষকের ভাড়াটে যুবকের হামলায় আরেক শিক্ষক আহত

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে এক শিক্ষকের ভাড়াটিয়া যুবক দিয়ে  আরেক শিক্ষকের ওপর অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে মারধর করার  অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ বৃহস্পতিবার জগন্নাথপুর থানায় হামলায় আহত শিক্ষক লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

 থানায় দায়েরকৃত লিখিত অভিযোগ ও শিক্ষকদের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, জগন্নাথপুর পৌর এলাকার ইসহাকপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুকুল চন্দ্র সরকার ও উপজেলার সৈয়দপুর সামছিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বারিন্দ্র চন্দ্র সরকারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে পূর্ব বিরোধ চলছিল। সম্প্রতিকালে শিক্ষক বারিন্দ্র সরকারের ছোট ভাই শিক্ষক  মুকুল সরকারকে অপদস্থ করেন । এ বিরোধের জেরে বৃহস্পতিবার  সকালে স্থানীয় ভবের বাজার থেকে রিকশাযোগে শিক্ষক বারিন্দ্র সরকার কর্মস্থল সৈয়দপুরে যাওয়ার পথে ভবের বাজার এলাকায় তাঁর রিকশা আটকে প্রতিপক্ষ মুকুল সরকারের উপস্থিতিতে ভাড়াটে অজ্ঞাতনামা এক যুবক বারিন্দ্র সরকারকে মারধর করে। পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে পরিস্থিতি শান্ত করেন। এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছে।

সৈয়দপুর সামছিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বারিন্দ্র চন্দ্র সরকার জানান, শিক্ষক মুকুল সরকার তাঁর ভাড়াটে যুবক দিয়ে আমার ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে মারধর করেছেন। এ ব্যাপারে আমি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।

এ বিষয়ে  ইসহাকপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুকুল চন্দ্র সরকার তাঁর বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি হামলার বিষয়ে কিছু জানি না।  

জগন্নাথপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) দ্বীপঙ্কর সরকার বলেন, শিক্ষকের লিখিত অভিযোগ পেয়ে আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি।

জগন্নাথপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মানিক চন্দ্র দাস বলেন, দুই শিক্ষকের মধ্যে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে বলে শুনেছি। পরে শিক্ষকরা বিষয়টি সমাধান করে দিয়েছেন।

সিলেট