English

অক্টোবর ২৫, ২০২১ ০৪:২২ অপরাহ্ন



অক্টোবর / ২৫ / ২০২১


লন্ডন প্রতিনিধি

আপডেটের : অক্টোবর / ২৫ / ২০২১

১৫তম বিসিএ এওয়ার্ড অনুষ্ঠান ৭ নভেম্বর

ব্রিটেনে বাংলাদেশী কারী ইন্ড্রাষ্টির বৃহত্তম সংগঠন বাংলাদেশ ক্যাটার্রাস এসোসিয়েশন (বিসিএ) বর্ণাঢ্য আয়োজনে ডায়মন্ড জুবিলী সেলিব্রেশন এর সাথে ১৫তম বিসিএ এওয়ার্ড প্রদান করবে। অনুষ্ঠানটি আগামী ৭ নভেম্বর, রবিবার লন্ডনের বিখ্যাত ওটু ইন্টারকন্টিনাল (O2 Intercontinental)-এ অনুষ্ঠিত হবে।


সাম্প্রতিক কোভিড-১৯ অতিমারীতে শুধু ব্রিটেন নয় পুরো বিশ্ব বিপর্যয়ের মধ্যে ছিল। এসময় ব্রিটেনে হসপিটালিটি সেক্টর পার করেছে কঠিন সময়। ব্রিটেনে বাংলাদেশী কারী শিল্পের প্রতিনিধিত্বশীল সংগঠন বিসিএ এই দুর্যোগ পরিস্থিতি মোকাবেলায় দেশব্যাপী কমিউনিটির পাশে ছিল।



 

বিসিএ‘র সদস্যরা এনএইচএস স্টাফ, কেয়ার হোম ও ফ্রন্টলাইন ওয়ারকারদের মধ্যে এক মিলিয়ন খাবারের প্যাকেট বিনামূল্যে বিতরণ করেছে। এছাড়াও একই সময়ে বিভিন্ন শহরে এনএইচএস স্টাফদের জন্য ৫০% ডিসকাউন্টে খাবার কেনার সুযোগ দিয়েছে।



 

২০২১ সালের এই সময়ে বিসিএ ব্রিটেনের ‘বেষ্ট কারী হাউস’ ও ‘শেফ অফ দ্যা ইয়ার‘ নির্বাচনের জন্য ধারাবাহিক সকল কার্যক্রম করে যাচ্ছে।


আগামী ৭ নভেম্বর বর্ণাঢ্য আয়োজনের মাধ্যমে কারি ইন্ড্রাষ্টির বৃহতম সংগঠনের মর্যাদাকর এই এওয়ার্ড সেলিব্রেটি ও বিশিষ্টজনদের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা ও প্রদান করা হবে।



 

এবছরের বিসিএ এওয়ার্ড অনুষ্ঠানের গুরুত্ব তুলনামূলক বেশী। ব্রিটেনে কারী ইন্ড্রাষ্টির প্রাচীনতম সংগঠনটি তাদের বর্ণাঢ্য ডায়মন্ড জুবিলি উদযাপন করবে। কারী ইন্ড্রাষ্টির বিবদমান সমস্যা চিহ্নিত করে বিশেষ করে রেষ্টুরেন্ট এর দক্ষ ও অদক্ষ ষ্টাফ সংকট নিরসনের মাধ্যমে রেষ্টুরেন্টগুলোকে টিকিয়ে রাখা, ভিএটি ও বিজনেস রেইট কমিয়ে আনা এবং এ্যাপেন্ট্রিশীপ স্কিম এর মাধ্যমে অন্যান্য সমস্যা নিরসনের দাবী তুলে ধরবে।



 

বিসিএ গত ৬০ বছর ধরে যুক্তরাজ্যে সরকারী ও বিরোধীদল, পার্লামেন্ট ও লিডিং বিজনেস লিডারদের সাথে কারী ইন্ড্রাষ্টির নানা ইস্যু নিয়ে ক্যাম্পেইন এবং একটি শক্তিশালী ‘লবিং ভয়েস‘ তৈরী করতে পেরেছে। ৭ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ব্রিটেনের প্রায় ১২০০০ রেষ্টুরেন্ট ও টেকওয়ের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে দীর্ঘদিনের সম্পর্কের বন্ধনকে আর শক্তিশালী ও উজ্জীবিত করবে।


বিসিএ প্রেসিডেন্ট এম এ মুনিম বলেন, আমরা বিসিএ’র ৬০ বছর পূর্তির বছরে ১৫তম বিসিএ কারী এওয়ার্ড অনুষ্ঠান করতে পেরে অনেক গর্বিত। করোনা মহামারীর কারণে বিগত বছর আমরা অনেক দুর্যোগ ও চ্যালেঞ্জ এর মধ্য দিয়ে কাটালেও এবছরে আমরা সকলের সহযোগিতায় ঘুরে দাড়াবার প্রত্যয় নিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে চাই। বিসিএ কারী ইন্ড্রাষ্ট্রি নিয়ে পরবর্তি ৬০ বছর এবং তারও পরবর্তি সময়ে কারী শিল্পে ব্রিটিশ -বাংলাদেশীদের উত্তোরাধিকার –সংগঠনের সুনাম নিয়ে থাকতে চায়।


বিসিএ সেক্রেটারী জেনারেল মিঠু চৌধুরী বলেন, ২০২১ সাল বিসিএ’র জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ বিসিএ প্রতিষ্ঠার ৬০ বছর ধরে বাংলাদেশী কারীকে ব্রিটেনবাসীর আস্থা ও ভালোবাসায় জায়গা করে নিতে নানাভাবে কাজ করছে। কারী ইন্ড্রাষ্টিতে বাংলাদেশী কারী শিল্পকে মৌলিক ও গ্রহনযোগ্যভাবে তুলে ধরতে রাখছে অগ্রণী ভূমিকা ।


আমাদের বিশ্বাস করোনা অতিমারী সময়ে এনএইচ এস স্টাফ ও ফ্রন্ট্রলাইন ওয়ার্কারদের পাশে প্রয়োজনীয় খাবার নিয়ে সেবাদানের মাধ্যমে বাংলাদেশী কারী শিল্পকে কমিউনিটি বান্ধব হিসাবে ডাইভার্স কমিউনিটিতে তুলে ধরতে পেরেছি।


বিসিএ এর প্রধান কোষাধ্যক্ষ সাইদুর রহমান বিপুল বলেন, কোভিড-১৯ পেন্ডামিকে অত্যন্ত কঠিন সময় পার করলেও আমরা একসাথে কাজ করে এবং একে অপরকে সহযোগিতার মাধ্যমে সংকট কাটিয়ে উঠছি। বিসিএ এর ডায়মন্ড জুবিলী সময়ে ১৫তম এওয়ার্ড শুধুমাত্র কারী ইন্ড্রাষ্টির জন্য সম্মাননা নয়, এটি ব্রিটেনের কারী লাভার্সদের উদ্বুদ্ধ এবং অনুপ্রেরণা যোগাবে।


বিসিএ এওয়ার্ড অনুষ্ঠানের আহ্ববায়ক জামাল উদ্দিন মকদ্দস বলেন, দীর্ঘ ৬০ বছর ধরে ব্রিটেনে বাংলাদেশী কারী ইন্ড্রাষ্ট্রির নেতৃত্বশীল সংগঠন বিসিএ’র সকল সদস্যের জন্য যেমন গর্বের তেমনি কারী শিল্পবান্ধব কমিউনিটির জন্যও একটি আলোকিত দিক। বিসিএ শুধু বাংলাদেশী রেষ্টুরেন্ট ব্যবসায়িদের জন্য কাজ করছেনা বরং বাংলাদেশী কারী শিল্পকে ব্রিটেনের খাবার ঐতিহ্যে উজ্জ্বল স্থান করে নিতে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে কাজ করছে।


বিসিএ প্রেসিডেন্ট এম এ মুনিম এর স্বাগত বক্তব্যে শুরু হওয়া সংবাদ সম্মেলনে ১৫তম বিসিএ এওয়ার্ড এর বিস্তারিত তুলে ধরেন প্রেস এন্ড পাবলিকেশন সেক্রেটারী ফরহাদ হোসেন টিপু। তিনি বলেন, ৭ নভেম্বরের জমকালো অনুষ্ঠানটি বাঙালি ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে প্রাধান্য দিয়েই অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে ব্রিটেনের সেলিব্রেটি এবং বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার বিশিষ্টজনরা আমন্ত্রিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন।


পরে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন- বিসিএ প্রেসিডেন্ট এম এ মুনিম,সেক্রেটারী জেনারেল মিঠু চৌধুরী, চীফ ট্রেজারার সাইদুর রহমান বিপুল ও প্রেস এন্ড পাবলিকেশন সেক্রেটারী ফরহাদ হোসেন টিপু।


বিসিএ ১৫তম এওয়ার্ড অনুষ্ঠানের রেস্টুরেন্ট অফ দ্যা ইয়ার এর হেড মুজিবুর রহমান ঝুনু,শেফ অফ দ্যা ইয়ার এর হেড আতিকুর রহমান তাদের এওয়ার্ড প্রতিযোগিতার বিস্তারিত তুলে ধরেন। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিসিএ’র সাবেক প্রেসিডেন্ট এম কামাল ইয়াকুব, সাবেক সেক্রেটারী জেনারেল ওলি খান।


এওয়ার্ড অনুষ্ঠানে স্পন্সরদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-কোবরা বিয়ারের সেইল ডাইরেক্টর সামসুন সোহেল, কিংফিশার বিয়ার এর চীফ অপারেটিং অফিসার শোন গোডি,ওইয়া এর সিইও নিতা গারিওয়ালা, পেটাপ এর ডাইরেক্টর সাহেদ আহমদ ও কেবক্স এর সিইও সালিমা ভিলানী।


১৫তম বিসিএ এওয়ার্ড অনুষ্ঠানের স্পন্সর হচ্ছে-কোবরা বিয়ার,কিংফিশার বিয়ার, ইবকো,কেবক্স, স্কয়ার মাইল ইন্সুরেন্স,গান্ধি ওরিয়েন্টাল ফুডস লিমিটেড, কানসারাস, পেটাপ,রাধুনী, রেভ্যুলেশন ফাইনেন্স ব্রকার লিমিটেড, টোটাল ফুড, সিম্পলি এনার্জি সলিউশন, এ্যারোমা আইসক্রীম এবং ওইয়া ।বিসিএ সকল স্পন্সরদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছে।


প্রসঙ্গত বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশন (বিসিএ) ১৯৬০ সালে প্রতিষ্ঠিত। যে কোন তথ্যের জন্য আমাদের ওয়েভ সাইট ভিজিট করুন(প্লিজ)। www.bca1960.com

প্রবাস