সিলেটের জেলা প্রশাসকের সাথে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল অভিভাবক এসোসিয়েশনের মতবিনিময়, স্মারকলিপি প্রদান

সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের কাছে বুধবার বিভিন্ন দাবিতে স্মারকলিপি দিয়েছে সিলেট ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল অভিভাবক এসোসিয়েশন।
অভিভাবক এসোসিয়েশনে সভাপতি জনাব মাহবুব চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আব্দুল মুকিত অপি সাক্ষরিত একটি স্মারকলিপিও প্রদান করা হয়। স্মারকলিপিতে তারা উল্লেখ করেন,করোনা সংকটে স্কুল বন্ধ থাকলেও ডেভেলপমেন্ট ও মেইনটেনেনস, লাইব্রেরি ও ল্যাব,ওয়াটার এন্ড সেনিটেশন ও স্পোর্টস খাতের বিপরীতে এককালীন মোটা অঙ্কের টাকা ছাড়া এক ক্লাস থেকে অন্য ক্লাসে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না। অভিভাবকরা শতভাগ বেতন দিলেও শিক্ষক কর্ম কর্তা কর্মচারীদের পুরো বেতন দেওয়া হচ্ছে না। এমনকি অনেক প্রতিষ্ঠানে ঈদ বোনাসও দেওয়া হয়নি । অভিভাবকদের গুরুত্ব না দিয়ে স্কুলগুলো নিজেদের ইচ্ছেমতো শিক্ষার্থী অভিভাবকদের ওপর নানান অন্যায় সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দিচ্ছেন বলে স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়।
স্মারকলিপি প্রদানের আগে করোনা সংকটে সিলেটের বিপুল শিক্ষার্থী, অভিভাবকদের সমস্যা,সকল স্কুলে টিউশন ফি ৫০% মওকুফ,শিক্ষা ব্যয় কমিয়ে আনা,রিএডমিশন বা অন্য নামে বেআইনি ফি আদায় বন্ধে হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসকের সাথে তার কার্যালয়ে মতবিনিময় করেন। মতবিনিময়ে সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছাড়াও অংশ নেন ও উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্যানেল মেয়র,আনন্দ নিকেতনের অভিভাবক কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েস লোদী ,অভিভাবক এডভোকেট কুতুবউদ্দিন,বিবিআইএসসির অভিভাবক নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

মতবিনিময়কালে জেলা প্রশাসক করোনা সংকটে শিক্ষার্থীদের বিষয়ে সকলকে আরো মানবিক হবার পাশাপাশি হাইকোর্টের রায় মেনে সকলকে স্কুল পরিচালনা করার তাগিদ দেন বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। মতবিনিময়ে জেলা প্রশাসক বলেণ, ফি’র জন্য কোন শিক্ষার্থীকে অনলাইন ক্লাসের বাইরে রাখা যাবে না। একটি শিশুও যেন ঝরে না পড়ে সেদিকে স্কুলগুলোকে খেয়াল রাখতে হবে।

নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসককে জানান, রাইজ,ইউরো কিডস,বিবিআইএসসি, গ্রামার,খাজাঞ্চিবাড়ি,স্কলার্সহোম সহ কয়েকটি স্কুল হাইকোর্টের রায় লংঘন করে বিভিন্ন নামে বেআইনি ভাবে রিএডমিশনের টাকা নিচ্ছে। করোনা সংকটে সকল স্কুলে শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি ৫০% মওকুফ সহ শিক্ষা ব্যয় কমিয়ে আনতে তারা কার্যকর পদক্ষেপ আশা করেন জেলা প্রশাসকের। আনন্দনিকেতন হাইকোর্টের রায় মেনে ও অভিভাবক এসোসিয়েশনের দাবীর প্রতি সম্মান দেখিয়ে রিএডমিশন ফি নিচেছ না বলে নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসককে অবহিত করেন। এ জন্য তারা আনন্দনিকেতন স্কুল কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।-বিজ্ঞপ্তি।

শেয়ার করুন