শিশুরা বংশানুক্রমে প্রতিবন্ধী হওয়ার কারণ গবেষণা করে বের করতে হবে -পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন

বিশ্বনাথে প্রতিবন্ধীর মাঝে মৌসুমী ফল বিতরণ

বিশ্বনাথ প্রতিনিধিঃ বিশ্বনাথে আমতৈল গ্রামে প্রায় সাড়ে ৩শ জনেরও বেশি প্রতিবন্ধী রয়েছে। যাদের বেশিভাগই শিশু।

চলমান করোনা ভাইরাসের দুর্যোগময় মুহুর্তে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে সমাজসেবামূলক সংগঠন ম্যানকাইন্ড অর্গানাইশেন। সংগঠনের পক্ষ হতে গ্রামে প্রায় দু’শতাধিক প্রতিবন্ধীর মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে আম,কাঠাল, আনারস ও লেবু’সহ বিভিন্ন মৌসুমি ফল।
শনিবার বিকেলে আমতৈল গ্রামের ঈদগাহ মাঠে আয়োজিত ফল বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন পিপিএম।
এসময় বক্তব্যে তিনি বলেন- কি কারণে এই এলাকায় বংশানুক্রমে শিশুরা প্রতিবন্ধী হচ্ছে এর কারণ খোঁজে বের করতে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মাধ্যমে গবেষণা করা দরকার এবং কারণ চিহিৃত করে এমন ব্যবস্থা নেয়া উচিত যাতে ভবিষ্যতে আর কোন শিশু জন্মগ্রহন করে সে প্রতিবন্ধী না হয়। তাহলেই আমাদের অনাগত ভবিষ্যৎ যারা আসবে তারা হয়তো এটা থেকে মুক্তি পাবে।

রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর’র সভাপতিত্বে ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আলতাব হোসেন’র পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট সদর (দক্ষিণ) সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম, বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা, বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমদ, কোয়ান্টাম মেথড সিলেটের পরিচালক সিতাব আলী।
ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সাবেক সহ-সম্পাদক শহীদ চৌধুরীর সার্বিক তত্তাবধানে অনুষ্ঠানে বিশ্বনাথ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রমা প্রসাদ চক্রবর্তী, আওয়ামী লীগ নেতা বশির আহমেদ, সিলেট বারের এপিপি এডভোকেট মোহাইমিন চৌধুরী বাপ্পি, স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আলা উদ্দিন, জেলা যুবলীগ নেতা জিল্লুর রহমান দারা ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোবারক হোসেন’সহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন