কানাইঘাটে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে

কানাইঘাট (সিলেট) প্রতিনিধি ।। সিলেটের সীমান্তবর্তী কানাইঘাট উপজেলায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। নতুন করে আরও ৮জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে উপজেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩১ জনে দাঁড়িয়েছে। নতুন শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শেখ শরফুদ্দিন নাহিদ ও তার স্ত্রী আয়শা আক্তারও রয়েছেন।

আরও পড়ুন-সিলেটে দুই ল্যাবে একদিনে ৬৯ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত

বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব থেকে ডা. শেখ শরফ উদ্দিন নাহিদকে করোনা আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি জানানো হয়। জানা যায়, কিছুদিন আগে শেখ শরফ উদ্দিন নাহিদ, স্ত্রী আয়শা আক্তার, দুই ছেলে ও এক মেয়ের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ফলাফলে স্বামী-স্ত্রীর করোনার রিপোর্ট পজেটিভ আসে। এই চিকিৎসক দম্পতি বর্তমানে সরকারি কোয়ার্টারে কোয়ারেন্টিনে আছেন।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার শরফ উদ্দিন নাহিদ ৩ দিন ধরে জ্বর,সর্দি, কাশিতে ভুগছিলেন। তার স্ত্রী আয়শা আক্তারের গলাসহ শরীরে ব্যথা রয়েছে। এছাড়া তাদের শারীরিক অবস্থা ভালোই রয়েছে।

আরও পড়ুন- কানাইঘাটে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, ঈদের দিন ৮ জন আক্রান্ত

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কানাইঘাটে কমিউনিটি ট্রান্সমিশন ছড়িয়ে পড়েছে। মূলত লকডাউন না মানা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় না রাখার কারণেই এ উপজেলায় ক্রমেই এ ভাইরাসের আক্রান্তের ষংখ্যা বাড়ছে বলেও মন্তব্য করেন তারা। সামনের দিনগুলোতে নিজেদের সুরক্ষিত রাখার জন্য সবাইকে সচেতন থেকে ঘরে থাকার আহ্বান জানান তারা।

শুক্রবার সকালে নতুন আক্রান্তদের সবার বাড়ি লকডাউন করা হবে এবং পরিবারের সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বারিউল করিম খান।

কানাইঘাটে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত ৯ মে। প্রথম আক্রান্ত রোগী ফারুক আহমদ সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এরপর থেকে করোনা সংক্রমণে সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

শেয়ার করুন