করোনা ভাইরাস: সুরক্ষা সরঞ্জামের অভাবে আতঙ্কিত কানাইঘাটের চিকিৎসক-নার্সরা

আলাউদ্দিন, কানাইঘাট (সিলেট) প্রতিনিধি ॥ সিলেটের সীমান্তবর্তী কানাইঘাট উপজেলা প্রবাসী অধ্যুষিত একটি উপজেলা। এ উপজেলা সদর হাসপাতালে নেই প্রয়োজনীয় সুরক্ষা সরঞ্জাম। নেই চিকিৎসা সরঞ্জামও। যে কারণে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ আতঙ্কে রয়েছেন চিকিৎসক-নার্সরা। ফলে আতঙ্কিত চিকিৎসকরা হাসপাতালে আসা রোগীদের চিকিৎসা দিতে স্বস্তি বোধ করছেন না।

শনিবার বিকেলে উপজেলায় জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে ‘নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটি’র সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ শেখ শরফুদ্দিন নাহিদ এসব তথ্য জানিয়ে বলেন, ‘উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ সরঞ্জামাদি নেই। যার কারণে চিকিৎসা করা নিয়ে এক ধরণের ভয়ের মধ্যে আছেন। চিকিৎসকদের জন্য ভাইরাস প্রতিরোধে গাউন এবং মাস্ক উপজেলা পরিষদ থেকে প্রাথমিক ভাবে বরাদ্দের দাবি জানান তিনি।’

উপজেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে এ সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ বারিউল করিম খান। সভায় করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে জনসাধারণকে সতর্কতার সাথে স্বাস্থ্য নির্দেশিকা মেনে চলার উপর গুরুত্ব দিতে বলেছেন প্রশাসনের কর্মকর্তারা। একই সাথে সম্প্রতি বিভিন্ন দেশ থেকে ফেরত প্রবাসীরা যাতে করে জনসম্মুখে বের হতে না পারে এজন্য তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন রাখাসহ কঠোর নজরদারী রাখতে প্রশাসনিক তৎপরতা জোরদার এবং জনপ্রতিনিধিদের আরো সক্রিয় দায়িত্ব পালনের জন্য আহ্বানও জানানো হয়।

কানাইঘাট থানার ওসি শামসুদ্দোহা পিপিএম বলেন, ‘করোনাভাইরাস নিয়ে জনগণকে সচেতন করার জন্য দিনরাত থানা পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে প্রবাস ফেরত যাদের তালিকা আমরা পেয়েছি, তাদের উপর নজরদারি রেখে তারা যাতে করে ১৪দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকেন সেটা মনিটরিং আমরা করে যাচ্ছি। প্রবাসীদের এতে আতংকিত না হওয়ার জন্য তিনি অনুরোধ জানান।’

তিনি বলেন, ‘কেউ নির্দেশ না মানলে তাদের বিরুদ্ধে সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব। জনপ্রতিনিধিরা করোনা ভাইরাস থেকে জনসাধারণকে সচেতন এবং প্রবাস ফেরতদের উপর কঠোর নজরদারী রাখার জন্য তাদের বিভিন্ন মতামত তুলে ধরেন।’

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুমিন চৌধুরী ও নির্বাহী কর্মকর্তা বারিউল করিম খান বলেন, ‘নভেল করোনাভাইরাস বিশ^ব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে। সরকার দেশের জনসাধারণকে সুরক্ষা দেয়ার জন্য ইতিমধ্যে নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। সেই আলোকে কানাইঘাটে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমরা বিভিন্ন ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করছি। বিশেষ প্রয়োজন ব্যতীত কেউ যেনো বাড়ির বাহিরে ঘোরাফেরা না করেন এবং জনসমাগম বেশি এমন অনুষ্ঠান এড়িয়ে চলতে সবাইকে আহ্বান করা হয়েছে।

এ সময় বিভিন্ন ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দসহ সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন