নানা কর্মসূচিতে শোক দিবস পালন করলো সিলেট জেলা পুলিশ

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করেছে সিলেট জেলা পুলিশ। কর্মসূচির মধ্যে ছিল আলোচিত্র ও প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন, চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা, স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি, আলোচনা সভা এবং দোয়া ও মিলাদ মাহফিল।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বর্ণাঢ্য ও চ্যালেঞ্জিং রাজনৈতিক এবং পারিবারিক জীবনের বিরল আলোক ও প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয। প্রজেক্টরের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর বিভিন্ন আদর্শিক ও রাজনৈতিক ঘটনাসমূহের প্রামান্যচিত্র তুলে ধরা হয়েছে। প্রদর্শনীতে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট রাতে শাহাদাতবরণকারীদের ছবি এবং ঘটনা প্রবাহের আলোকে সংগৃহীত আলোকচিত্রের মাধ্যমে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের নাগরিকদের কাছে মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু এবং দেশপ্রেমের এক হৃদয়গ্রাহী আবেদন উপস্থাপন করা হয়।

শোক দিবসে সিলেট জেলা পুলিশের উদ্যোগে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয।

ভব্যিষৎ প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখতে স্কুল শিক্ষার্থীদের মাঝে চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এতে পুলিশ লাইন্স উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ৫টি গ্রুপে অংশগ্রহণ করে।

বাদ মাগরিব সিলেট জেলা পুলিশ লাইন্সে অবস্থিত বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ এসপি এম. শামসুল হক মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবস-২০১৯ উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সিলেট জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি কামরুল আহসান বিপিএম।

আলোচনা সভায় সিলেট জেলার অতিরিক্ত পুলিশ (উত্তর) মাহবুবুল আলম, জেলা বিশেষ শাখার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জনাব মো. আমিনুল ইসলামসহ জেলা পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও ফোর্সরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় প্রধান অতিথি রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী স্কুল শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করেন।

পরে জেলা পুলিশ লাইন্স হলরুমে জাতির পিতা ও তাঁর পরিবারের শাহাদাতবরণকারী সদস্যদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

এর আগে বেলা ১২টায় সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মো. কামরুল আহসান বিপিএম আলোকচিত্র ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী এবং স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচীর শুভ উদ্বোধন করেন। তিনি সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে বলেন, সিলেট জেলা পুলিশ কর্তৃক আয়োজিত এই আলোকচিত্র ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী এবং মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ শীর্ষক রচনা-চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা সকলের জন্য বিশেষতঃ স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য শিক্ষার এক গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। তারা এখান থেকে স্বাধীনতা, দেশপ্রেম এবং বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে ও বুঝতে পারবে।

শেয়ার করুন