নিজেকে নির্দোষ দাবি ক্রাইস্টচার্চের হামলাকারীর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করেছেন নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের মসজিদের হামলাকারী ব্রেন্টন ট্যারেন্ট। তার বিরুদ্ধে আদালতে ৫১ জনকে হত্যা, ৪০ জনকে হত্যার চেষ্টা এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের একটি অভিযোগসহ মোট ৯২টি অভিযোগ আনা হয়েছে।

কিন্তু সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ট্যারেন্ট। ক্রাইস্টচার্চ কারাগার থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হাইকোর্টে হাজিরা দেন তিনি। চলতি বছরের ১৫ মার্চ জুমার নামাজের সময় মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা চালানো হয়।

মসজিদে ঢুকে নামাজরত মুসল্লিদের ওপর এলোপাতাড়ি গুলি চালাতে থাকেন অস্ট্রেলীয় নাগরিক ব্রেন্টন ট্যারেন্ট। পুরো হামলার ঘটনা তিনি ফেসবুকে লাইভ করেন। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় সে দুটি মসজিদে নারী, পুরুষ ও শিশুদের ওপর হামলা চালাচ্ছে।

নিউজিল্যান্ডে এই প্রথম কারো বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হলো। হামলা থেকে বেঁচে যাওয়াদের কয়েকজন এবং নিহতদের স্বজনরা শুনানির সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

ট্যারেন্টের আইনজীবী যখন নির্দোষ দাবী করে তার মক্কেলের দেয়া বিবৃতি পড়ে শোনান, আদালত কক্ষে তখন ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। অনেকেই ডুকরে কেঁদে ওঠেন।

বিচারক জানিয়েছেন, আগামী বছরের ৪ মে পর্যন্ত মামলার কার্যক্রম চলবে এবং ১৬ আগস্ট পরবর্তী শুনানির আগ পর্যন্ত কারাগারে ট্যারেন্টের রিমান্ড চলবে।

এর আগে গত এপ্রিলে যখন ট্যারেন্ট আদালতে হাজিরা দিয়েছিলেন তখন তাকে মানসিক চিকিৎসা নেবার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন আর তার সুস্থতা নিয়ে কোন প্রশ্ন নেই বলে জানিয়েছেন বিচারক।

এর মধ্যে গত সপ্তাহে ট্যারেন্টের ছবি প্রকাশের ওপর যে নিষেধাজ্ঞা ছিল তা প্রত্যাহার করে নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। হামলার পরপরই গ্রেফতার হন ট্যারেন্ট। এরপর গত ১৬ মার্চ তাকে প্রথম আদালতে হাজির করা হয়।

শেয়ার করুন