মশার উৎপাতে অতিষ্ঠ সিলেট নগরবাসী

mosha2তানভীর আহমদের রুবেল : শীতকালে মশার উপদ্রব যেনো কয়েকগুণ বেশিই বেড়ে যায়। কোনো কিছু করেই এই ঝামেলা থেকে মুক্তি পাওয়া যায় না। মশার কয়েল, স্প্রে, ক্রিম সব কিছুই মশার উপদ্রবের কাছে হার মানে।  এরফ ফলে মশার আক্রমণ দ্বারা নগরবাসীকে আক্রান্ত হতে হচ্ছে নানা রোগ ব্যধিতে।
এদিকে,  ঢাকঢুল পিটিয়ে সিলেট নগরীর বিভিন্ন ছড়া-খাল উদ্ধার করা হয়। ছড়া খালের পাশে থাকা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা করা হয়। বর্তমানে অনেক ছড়া খাল উদ্ধার অভিযান চলছে। কিন্তু নগরীতে সম্প্রতি মশার উৎপাতে উতিষ্ঠ নগরবাসী। স্কুল কলেজ বাসা-বাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, অফিসসহ বিভিন্ন স্থানে মশার আক্রমন থেকে রক্ষা পাচ্ছেন না তারা। মশার কামড়ে অনেকেই বিভিন্ন ধরণের রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। শীত শুরুর মৌসুমে মশার উপদ্রব বৃদ্ধি পাওয়ায় নগরবাসীর দুর্ভোগের শেষ নেই। কিন্তু আর্শ্চর্য হলেও সত্য এই মশা দমনের কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)। মশার আক্রমনে অতিষ্ট হয়ে উদাসীন কতৃপক্ষের উপর ক্ষুব প্রকাশ করেন নগরবাসী।
সরে জমিনে ঘুরে দেখা গেছে, নগরীর অধিকাংশ নালা-ছড়াগুলো উদ্ধার হলেও সেগুলোতে মশক নিধন স্প্রে না করায় এবং শীত মৌসুমে মশার উপদ্রব বৃদ্ধিপাওয়ায় নগরীবাসী অতিষ্ঠ। তারা বলেন, নগরীর নালা-খালগুলো অবৈধ উচ্ছেদের ফলে এ বছর নগরীতে প্রতিবছরের মতো জলাবদ্ধ না থাকলেও  কমেনি মশরার উপদ্রব।
নগরীর বিভিন্ন স্থানে অবৈধ দখল থেকে ছড়া-নালা মুক্ত করায় মেয়র আরিফিএর প্রশংসা করেন কিন্তু সে সাথে তারা এ দাবী করেন দখল মুক্ত এসব নালা-খালগুলোতে সময় মত যদি মশক নির্ধন ঔষধ প্রয়োগ করা হতে তাহলে হয়তো মশার একম উপদ্রব থেকে নগরবাসী মুক্তি পেত। তাই তারা  মশা দমনে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নগর কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানিয়েছেন।
শেয়ার করুন