ত্রিপল হত্যা মামলার কিশোর আসামীকে আদালতের নির্দেশে টঙ্গীর সংশোধনাগারে পাঠানো হচ্ছে আজ

সিলেটের সকাল রিপোর্ট:সিলেট শহরতলীর বিআইডিসি এলাকার মীরমহল্লায় সৎ মা ও দুই ভাই বোনকে খুনের ঘটনায় আটক কিশোরকে (১৭) গাজীপুরের টঙ্গীর কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানো হচ্ছে। আদালতের নির্দেশে আজ মঙ্গলবার তাকে সংশোধনাগারে পাঠাবে পুলিশ। এর আগে ওই কিশোরের বয়সের প্রমাণপত্র দাখিল করায় সোমবার বেলা আড়াইটায় শিশু আদালতের বিচারকের দায়িত্ব পালন করা জেলা ও দায়রা জজ বজলুর রহমান এ আদেশ দেন। সমাজসেবা অধিদপ্তর সিলেটের প্রবেশন কর্মকর্তা তমির হোসেন চৌধুরী জানান, শিশু আদালতে কিশোরের বিচার শিশু আইন ২০১৩ ও জাতীয় শিশু সুরক্ষানীতি মেনে চলবে। এই বিচার প্রক্রিয়ায় শিশু আইন নির্দেশিত সমাজসেবা অধিদপ্তরের প্রবেশন সহায়তা করবে। সিলেট শহরতলীর বিআইডিসি এলাকার মীরমহল্লার একটি বাসা থেকে গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে শয়নকক্ষ থেকে রুবিয়া বেগম চৌধুরী (৩০), মেয়ে জান্নাতুল হোসেন (৯) ও ছেলে তাহসান হোসেন খানের (৭) লাশ উদ্ধার করা হয়। এ সময় কক্ষে রক্তমাখা ছুরিসহ রুবিয়ার সৎছেলেকে (১৭) আটক করে পুলিশ।
ওই কিশোর পুলিশকে জানায়, ভাত খেতে চেয়ে না পাওয়ায় সৎমা ও ভাই-বোনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে সে। এ ঘটনায় গত শুক্রবার রাতে নিহত রুবিয়ার ভাই আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে শাহপরান থানায় হত্যা মামলা করেন।
অন্যদিকে, কিশোরের বয়স বাড়িয়ে আটক দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করলে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। গত শনিবার দুপুরে মহানগর পুলিশ ওই কিশোরের নাম ও পরিচয় উল্লেখ করে একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি পাঠায়। এতে হত্যা মামলার আসামি হিসেবে কিশোরের বয়স ১৯ বছর উল্লেখ করা হয়। এরপর ওই কিশোরের বাবার (৫২) সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, তার ছেলের বয়স ১৮ বছরের নিচে। আদালতে দেওয়া ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতেও ওই কিশোর বলেছে, তার বয়স ১৭ বছর। ১৭ বছর বয়সী কিশোরের বয়স মামলার এজাহারে ১৯ বছর নির্ধারণ করা প্রসঙ্গে শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ আনিসুর রহমান জানান, বয়স নির্ধারণ করা হয়েছে পরিবার ও প্রতিবেশীদের জিজ্ঞাসা করে।
প্রবেশন কর্মকর্তা তমির হোসেন চৌধুরী বলেন, কোনো প্রমাণপত্র ছাড়া একজন কিশোরের বয়স নির্ধারণ করে মামলা ও গ্রেফতার দেখানো আইনসিদ্ধ হয়নি। শাহপরান থানা পুলিশের ‘শিশু ডেস্ক’ এর মাধ্যমে ওই কিশোরের বয়সের প্রমাণপত্র সংগ্রহ করে শিশু আদালতে উপস্থাপন করা হয়। ওই কিশোর প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল। শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সনদপত্র অনুযায়ী বয়স ১৭ বছর ১ মাস। বয়সের এই প্রমাণপত্র শিশু আদালতে দাখিল করলে বিচারক তাকে সংশোধানাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। আজ মঙ্গলবার তাকে টঙ্গীতে পাঠানো হবে।

শেয়ার করুন