গোয়াইনঘাটে এলজিএসপি-৩ প্রকল্পের টাকা নিয়ে দূর্নীতির অভিযোগ

মনজুর আহমদ, গোয়াইনঘাট থেকে ।। সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার ৫নং পূর্ব আলীরগাঁও ইউনিয়নের এলজিএসপি-৩ প্রকল্পের বরাদ্ধের টাকা ১০নং পশ্চিম আলীরগাঁও ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আবুল খয়ের কর্তৃক হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে পূর্ব আলীরগাঁওয়ের বাসিন্দা জহিরুল ইসলাম বাদী হয়ে গত ১৬ সেপ্টেম্বর সিলেটের জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগও দাখিল করেছেন। যার ডকেট নং (০৩)।

বাদীর লিখিত অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, (এলজিএসপি-৩) প্রকল্প পরিচালক (যুগ্ম-সচিব) এনামুল হাবিব স্বাক্ষরিত ১২-৭-২০২০ ইং তারিখে পত্র মোতাবেক ৫নং পূর্ব আলীরগাঁও ইউনিয়নে ৩১৪৯৯৬৩ টাকা ও পশ্চিম আলীরগাঁওয়ে ৮৬৭২৪৩ টাকা বরাদ্ধ প্রদান করা হয়।

কিন্তু বিগত ৯-৩-২০ ইং তারিখে বিজিসিসি সভায় ১০ নং পশ্চিম আলীরগাঁও ইউপিতে প্রায় বিশ লক্ষ টাকার বেশি এবং ৫নং পূর্ব আলীরগাঁও ইউপিতে মাত্র ১২ লক্ষ টাকার প্রকল্প অনুমোদিত হয়।

উল্লেখ্য যে পশ্চিম আলীরগাঁও ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আবুল খয়ের সরকারের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে তার ক্ষমতার অপব্যবহার দেখিয়ে পুর্ব আলীরগাঁও ইউপির সরকার কর্তৃক বরাদ্দকৃত টাকার প্রকল্প পশ্চিম আলীরগাঁও ইউনিয়নে নিয়ে যান।

এতে পূর্ব আলীরগাঁও বাসীর মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হচ্ছে। এদিকে জেলা প্রসাশক ছাড়াও এলাকাবাসীর পক্ষে বাদী হয়ে এবিষয়ে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী সহ সরকারের উর্দ্ধোতন দপ্তরে একাধিক লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আবুল খয়ের জানান, ‘এসব ষড়যন্ত্র। নিয়মতান্ত্রিক পন্থায় তিনি বরাদ্ধ পেয়েছেন।’

ইউপি সচিব সুমন হরিপ্রিয় দাশ জানান, ‘একটু উল্টাপাল্টা হয়েছে। ১৯-১০-২০ইং তারিখে এ ব্যাপারে উপজেলা পর্যায়ে বৈঠক রয়েছে এবং ঐ বৈঠকে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে বলে তিনি জানান।’

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুস সাকিব জানান, ‘এই বরাদ্ধ ইউনিয়ন ডিভাইড হওয়ার পূর্বে এসেছে এবং সে মোতাবেক বন্টন করা হয়েছে।’

শেয়ার করুন