চলাচল শুরু করেছে জয়ন্তিকা ও উপবনসহ আরও ১৯ জোড়া ট্রেন

সিলেটের সকাল রিপোর্ট ।। করোনা পরিস্থিতির কারণে গত ২৪ মার্চ থেকে বন্ধ থাকার পর সিলেট-ঢাকা-সিলেট রুটের আন্ত:নগর জয়ন্তিকা ও উপবন এক্সপ্রেসসহ সারাদেশের বিভিন্ন রুটের আরও ১৯ জোড়া আন্তঃনগর, লোকাল, কমিউটার ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) থেকে এসব ট্রেন চলাচল শুরু করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

চলাচল শুরু করা ট্রেনগুলোর মধ্যে রয়েছে চট্টগ্রাম- ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের মহানগর গোধুলী/প্রভাতী, চট্টগ্রাম-ঢাকা চট্টগ্রাম তুর্ণা এক্সপ্রেস, ঢাকা-মোহনগঞ্জ-ঢাকা মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেস, ঢাকা-জামালপুর-ঢাকা জামালপুর এক্সপ্রেস, ঢাকা-বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম-ঢাকা দ্রুতযান এক্সপ্রেস, রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী ধুমকেতু এক্সপ্রেস, ঢাকা-রংপুর-ঢাকা রংপুর এক্সপ্রেস, সিরাজগঞ্জ বাজার-ঢাকা-সিরাজগঞ্জ বাজার সিরাজগঞ্জ এক্সপ্রেস, খুলনা-চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহানন্দা এক্সপ্রেস, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রহনপুর লোকাল, রহনপুর-খুলনা মহানন্দা এক্সপ্রেস, সান্তাহার-লালমনিহাট-সান্তাহার পদ্মরাগ কমিউটার, খুলনা-গোয়ালন্দঘাট-খুলনা নকশিকাথাঁ এক্সপ্রেস, চট্টগ্রাম-চাঁদপুর-চট্টগ্রাম সাগরিকা কমিউটার, রাজশাহী-পার্বতীপুর-রাজশাহী উত্তরা এক্সপ্রেস, ঢাকা-মোহনগঞ্জ-ঢাকা মহুয়া এক্সপ্রেস এবং খুলনা-বেনাপোল-খুলনা বেতনা এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচল করবে।

এখন সব মিলিয়ে মোট ৬৭ জোড়া, অর্থাৎ ১৩৪টি ট্রেন যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল করছে বিভিন্ন রুটে। এর আগে বাংলাদেশ রেলওয়ের উপ-পরিচালক (ট্রাফিক ট্রান্সপোর্টেশন) স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে ৫ সেপ্টেম্বর থেকে ১৯ জোড়া ট্রেন চলাচল শুরু করবে বলে জানানো হয়েছিল।

করোনা পরিস্থিতির কারণে গত ২৪ মার্চ থেকে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এরপর গত ৩১ মে প্রথম দফায় আট জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন চালু করা হয়। পরবর্তীতে ৩ জুন দ্বিতীয় দফায় আরও ১১ জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন বাড়ানো হয়। তবে কিছুদিন পর যাত্রী সংকটে দুই জোড়া ট্রেন বন্ধ হয়ে যায়। গত ১৬ আগস্ট নতুন করে আরও ১২ জোড়া আন্তঃনগর ও এক জোড়া কমিউটার ট্রেন মোট ১৩ জোড়া ট্রেন নতুন করে চলাচল শুরু হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৭ আগস্ট থেকে আরও ১৮ জোড়া ট্রেন চলাচল শুরু হয়। এরপরেই আজ ৫ সেপ্টেম্বর থেকে আন্তঃনগর, কমিউটার ও লোকাল সহ আরও ১৯টি ট্রেন চলাচল শুরু হচ্ছে।

শেয়ার করুন