ওসমানীনগরে বাস চাপায় নিহত ৬ জনের দাফন সম্পন্ন

ওসমানীনগর প্রতিনিধিঃ সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের ওসমানীনগর উপজেলার সাদীপুরে মামুন পরিবহনের একটি বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৬ জনের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে বিনা ময়নাতদন্তে
তাদেরকে জানাজাশেষে দাফন করা হয় বলে জানিয়েছে হাইওয়ে পুলিশ।

নিহতদের জানাজা

বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার গজিয়া এলাকায় একই পরিবারের চার জনসহ ৬ জনের মৃত্যু হয়।
নিহতরা হলেন, উপজেলার গেয়ালাবাজার ইউনিয়নের ব্রাহ্মণ গ্রামের কামরুজ্জামান কমরুর মেয়ে কারিমা বেগম (৭) ও খাদিজা বেগম (৪), কামরুজ্জামান কমরুর স্ত্রীর বোন মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ভাদ্র গ্রামের আওয়াল মিয়ার স্ত্রী হামিদা বেগম (৩৬), কামরুজ্জামান কমরুর বড় ভাই ফজলু মিয়ার মেয়ে আরিফা বেগম (১২), উপজেলার পূর্ব মোবারকপুর গ্রামের আলা উদ্দিনের ছেলে সিএনজি অটোরিকশা চালক জুনেদ মিয়া (২৮) ও চালকের সাথে থাকা একই গ্রামের ইউনুস আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর মিয়া (২২)।
জানা গেছে,ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী মামুন পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্রো ব- ১৪-৯৮৪৮) ও শেরপুরগামী অটোরিকশার (মৌলভীবাজার মেট্রো থ- ১১-৩৬৯১) মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশা চালক নিহত ও অটোরিকশার ৬ যাত্রী মারাত্মক আহত হন। খবর পেয়ে শেরপুর হাইওয়ে পুলিশ, ওসমানীনগর থানা পুলিশ ও তাজপুর ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আহতদের উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে প্রেরণ করেন। হাসপাতালে নেওয়ার পর চারজনকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। রাতে আরেক শিশুর মৃত্যু হয়। তাদের মুত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ওসমানীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শ্যামল বণিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত অটোরিকশা চালকসহ ৬ জন মারা গেছেন। দুর্ঘটনা কবলিত বাস শেরপুর হাইওয়ে পুলিশের জিম্মায় রাখা রয়েছে। তবে চালক পালিয়েছেন।

শেয়ার করুন