ঈদের জামাত শেষে পশু কোরবানিতে ব্যস্ত নগরের বাসিন্দারা

ফাইল ছবি

সিলেটের সকাল রিপোর্ট ।। মহামারি করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির মাঝে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা মসজিদে আদায় করেছেন ঈদুল আযহার জামাত। দুই রাকাত নামাজ শেষে এ ঈদের প্রধান অনুসঙ্গ পশু কোরবানিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন নগরের বাসিন্দারা।

সিলেটে পবিত্র ঈদ-উল-আজহার প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয় শনিবার (০১ আগস্ট) সকাল ৮টায় দরগাহে হজরত শাহজালাল (রহ.) কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে। জামাতের আগে বয়ানে কিভাবে কোরবানি করতে হবে, কোরবানির মাংস কিভাবে বিলিবণ্ঠন করতে হবে ইত্যাদি সম্পর্কে বক্তব্য দেন খতিবরা।

আরও পড়ুন-সিলেটে ঈদ জামাতে বন্যা-করোনা থেকে মুক্তির প্রার্থনা

নামাজ শেষে মহামারি করোনাভাইরাস ও চলমান বন্যা থেকে দেশবাসীকে রক্ষার জন্য মহান আল্লাহর দরবারে মোনাজাতও করা হয়। কামনা করা হয় দেশ ও জাতীর মঙ্গল। বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর ঐক্যও কামনা করা হয়।

দূষণ এড়াতে এবছও সিলেট সিটি কর্পোরেশন পশু জবাইয়ের ৩০টি স্থান নির্ধারণ করে দিয়েছে। অতিতের ন্যায় এবারও তাতে সাড়া মেলেনি। বরাবরের মতই নগরজুড়ে রাস্তা ও অলিগলিতে পশু জবাইয়ের দৃশ্য দেখা গেছে। অবশ্য কিছু কিছু নির্ধারিত স্থানে পশু জবাইর দৃশ্যও চোখে পড়েছে।

সিসিক বলছে, কোরবানির বর্জ্য অপসারণ ২৪ ঘন্টার মধ্যেই শেষ হবে। এক্ষেত্রে নগরবাসীর সহযোগিতাও চেয়েছে সিসিক।

শেয়ার করুন