সিলেটে বাড়ছে কিশোর অপরাধ


পৃথক অভিযানে ৭ কিশোর অপরাধী গ্রেফতার

 

সিলেটের সকাল রিপোর্ট:সিলেটে কিশোর অপরাধ বাড়ছে। বুধবার রাতে ওসমানী মেডিকেল কলেজ এলাকা থেকে এক নারী এস আইকে জিম্মি করে ছিনতাইয়ের ঘটনায় আটক করা হয়েছে চার কিশোর ছিনতাইকারীকে। এর আগের দিনে এক শিশু অপহরনের ঘটনায় নগরীতে আরো তিন কিশোর অপরাধীকে গ্রেফতার করা হয়। করোনার প্রাদুর্ভাবের মধ্যে কিশোর অপরাধ বৃদ্ধির প্রবণতাকে উদ্বেগজনক বলছেন বিশিষ্টজনেরা।
গত বুধবার সিলেট নগরীতে পুলিশ কর্মকর্তাকে বহনকারী সিএনজি অটোরিকশার গতিরোধ করে ছিনতাইয়ের চেষ্টা হয়েছে। ছিনতাইকারীদের হামলায় সিএনজি অটোরিক্সা চালক আহত হয়েছেন। এ সময় তাদের ধাওয়া করে ২ ছিনতাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ। তাদের তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার ভোরে অপর দুই ছিনতাইকারীকে ঘাসিটুলা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গত বুধবার রাত ১০টায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গ্রেফতারকৃত ছিনতাইকারীরা হল, সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলার পাঠাবুকা গ্রামের মো. আফাজ্জাল হোসেনের ছেলে বর্তমানে নগরীর ঘাসিটুলার মাদরাসা রোডের মোস্তাক মিয়ার কলোনীর বাসিন্দা আকিনুর ইসলাম আকিন(১৯), সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামের শামীম আহমদের ছেলে বর্তমানে ঘাসিটুলার মোস্তফা মিয়ার কলোনীর বাসিন্দা নাঈম আহমদ(১৯), সুনামগঞ্জের দক্ষিণ সুনামগঞ্জের পাগলা শত্রুমর্ধন গ্রামের রনজিত পালের ছেলে বর্তমানে নবাব রোড ২০৬ নং বাসার রনি পাল(২১) এবং কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম উপজেলার খয়ারপুর গ্রামের মৃত মনফর আলীর ছেলে বর্তমানে ঘাসিটুলা মোস্তাক হাজীর কলোনীর বাসিন্দা শফিকুল ইসলাম(২২)।
জানা যায়, জালালাবাদ থানার এসআই সাবিকুন নাহার ডিউটি শেষে একটি সিএনজি অটোরিক্সা দক্ষিণ সুরমার মহিলা ব্যারাকে ফিরছিলেন। বুধবার রাত ১০টার দিকে তাকে বহনকারী সিএনজি অটোরিকসা ওসমানী মেডিকেল কলেজ এলাকায় পৌঁছালে ছিনতাইকারীরা গাড়ির গতিরোধ করে এসআই সাবিকুন নাহারের টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এসআই সাবিকুন ও সিএনজি চালক বাধাা দিলে তারা সিএনজি চালক জুয়েল আহমদের পায়ে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় জনতার সহায়তায় টহলরত এসআই আব্দুল্লাহ আল নোমান সঙ্গীয় ফোর্সসহ ছিনতাইকারী আকিন ও নাইমকে আটক করতে সক্ষম হয়। পরে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে অপর দুই ছিনতাইকারী রনি পাল ও শফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ(এসএমপি)-এর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
এদিকে, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-৯ এর সদস্যরা মঙ্গলবার সিলেটে শিশু অপহরণ চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে । তাদের কাছ থেকে ভিকটিম শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়েছে।
গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে-সিলেট নগরীর লালদীঘিরপাড়ে অবনিক ঘোষের পুত্র ঋষি (২০), নগরীর জল্লারপারের আনিসুর রহমানের পুত্র মোঃ আবুল আমিদ (১৯) এবং দক্ষিণ সুরমার বরইকান্দি এলাকার কাবুল মিয়ার পুত্র সাব্বির ইসলাম (২০)।
র‌্যাব-৯ এর মিডিয়া অফিসার ওবাইন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মঙ্গলবার রাত ১১টা ৩৫ মিনিটের দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সামিউল আলম ও সহকারী পুলিশ সুপার আফসান আল-আলম এর নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল এসএমপির শাহপরাণ থানা এলাকা থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাদেরকে গ্রেফতার করে। তাদের বিরুদ্ধে এসএমপি’র কোতয়ালী থানায় একটি অপহরন মামলা রুজু আছে। তাদেরকে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানায় র‌্যাব।

শেয়ার করুন