জৈন্তায় বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের দাবি জোরালো হচ্ছে

SONY DSC

উত্তর-পূর্ব সিলেট তথা বৃহত্তর জৈন্তায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার দাবি জোরালো হচ্ছে। এ দাবিতে সিলেটে মানববন্ধনও অনুষ্ঠিত হয়েছে।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, বৃহত্তর জৈন্তা অত্যন্ত সমৃদ্ধ এলাকা। এ অঞ্চলের অতীত ঐতিহ্য রয়েছে। জ্ঞান-গবেষণার প্রতিযোগিতা বৃদ্ধির সাথে এখানে একটি বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার সময়ের দাবিতে পরিণত হয়েছে।
তারা এও বলেন, বৃহত্তর জৈন্তা এলাকা প্রাচীন জৈন্তিয়া রাজ্যের অংশ। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের দিক থেকে যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনি প্রাকৃতিক সম্পদের দিক থেকেও গুরুত্বপূর্ণ। ফলে পেট্রোলিয়াম, পরিবেশ বিজ্ঞান, ফরেস্টি, প্রাণীবিদ্যা, পানিবিদ্যা, উদ্ভিদ বিজ্ঞান ইত্যাদি বিষয়ের সমন্বয়ে একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা হলে এখানে হাতেকলমে গবেষণার ক্ষেত্র সৃষ্টি হবে। তাই, এখানে একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার দাবি খুবই যৌক্তিক।

এদিকে, গত ৪ জুলাই বিকেল ৩টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে এ কর্মসূচির আয়োজন করে ‘বৃহত্তর জৈন্তাবাসী’ নামের একটি সংগঠন। এতে সিলেটের কানাইঘাট, জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোকজন অংশ নেন।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ন্যাপের যুগ্মমহাসচিব এহসানুল হক জসীম, সিলেট জজ কোর্টের এপিপি এডভোকেট মামুন রশিদ, জৈন্তাপুর প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ সভাপতি ফয়েজ আহমদ, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস) এর সিলেট প্রতিনিধি শুয়াইবুল ইসলাম, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তাওহিদুল ইসলাম, কানাইঘাট স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আসিফ আযহার ও সাধারণ সম্পাদক শামসুল ইসলাম চৌধুরী, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাংলাদেশ পোস্টের চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি মাহবুব এ রহমান, স্থানীয় ব্যবসায়ী নোমান আহমদ সোহেল ও নূর আহমদ প্রমুখ। -বিজ্ঞপ্তি।

শেয়ার করুন