এডিসের লার্ভার উৎসস্থলে সিসিকের অভিযান, জরিমানা

সিলেটের সকাল ডেস্ক ।। সিলেট নগরে এডিসের লার্ভার উৎসস্থলে অভিযান চালিয়েছে সিটি করপোরেশনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানে ৬টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ৮৬ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) সিলেট নগরের দক্ষিণ সুরমার ভার্থখলা এলাকায় এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে এডিস মশার লার্ভার বংশ বিস্তারে সহায়ক পরিরবেশ সৃষ্টি ও সরকারি জায়গায় অবৈধভাবে পণ্য রাখার অভিযোগে সিরামিক ও প্লাস্টিকের দোকানগুলোকে জরিমানা করা হয়।

অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো হলো মেসার্স নাজমুল অ্যান্ড ব্রাদার্স-২, ধর স্যানিটারি মার্ট, মেসার্স হিমালয় স্যানেটারি, মেসার্স কয়েছ অ্যান্ড ব্রাদাস সহ ৬টি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা এডিস মশার লার্ভার জন্য সহায়ক পরিবেশ সৃস্টিতে তাদের অপরাধ এবং সরকারি জায়গায় অবৈধভাবে পণ্য রাখার অপরাধও স্বীকার করেন তারা।

সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা ও ম্যাজিস্ট্রেট মো. জসিম উদ্দিন এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সিসিকের ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র-১ মোহাম্মদ তৌফিক বকস ও সিসিকের সচিব (ভারপ্রাপ্ত) ও প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. জাহিদুল ইসলাম।

অভিযানে সহায়তা করেন সিলেট জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের কিট তত্ত্ববীদ মো. নজরুল ইসলাম। এসময় তিনি অভিযুক্ত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর খোলা স্থানে রাখা প্লাস্টিক ও সিরামিক পন্যে জমে থাকা পরিস্কার পানিতে এডিস মশার লার্ভার অস্তিত্ব পান।

এছাড়া সরকারি জায়গা থেকে দুদিনের মধ্যে পণ্য সামগ্রী সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। খোলা স্থান থেকে পণ্যগুলো অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে গুদামজাতের নির্দেশও দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

নতুন করে সন্ধান পাওয়া এডিস মশার লার্ভা ধ্বংসে ওষুধ ছিটানো হয়। একই সময় এলাকায় ফগার মেশিন দ্বারা মশক নিধনের ওষুধও দেওয়া হয়।

শেয়ার করুন