বিশ্বনাথে সাবেক ইউপি সদস্যের উপর হামলা, মামলা দায়ের

বিশ্বনাথ প্রতিনিধিঃ বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের অতর্কিত হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন সাবেক ইউপি সদস্য হাজী সোনা মিয়া (৭০)। তিনি উপজেলার খাজাঞ্চী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডে সাবেক মেম্বার ও স্থানীয় বন্ধুয়া গ্রামের মৃত ওয়াহাব উল্লাহর পুত্র।

শনিবার (২৭জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় নিজ বাড়ির সামনে তিনি এই হামলার শিকার হন। গুরুত্বর আহত অবস্থায় তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এঘটনায় আহত হাজী সোনা মিয়ার পুত্র বিলাল আহমদ বাদী হয়ে রোববার (২৮জুন) দুপুরে ১০জনের নাম উল্লেখ করে ও আরও ১৫/২০জন অজ্ঞাতনামা অভিযুক্ত করে বিশ্বনাথ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-২০।

মামলার অভিযুক্তরা হলেন- উপজেলার বন্ধুয়া গ্রামের মৃত তবারক আলীর পুত্র জামাল মিয়া (৩৩), একই গ্রামের মৃত ফখর উদ্দিনের পুত্র মইন উদ্দিন (৪০), জয়নাল উদ্দিন (২৮), সালেক উদ্দিন (২৬), দুদু মিয়ার পুত্র সুন্দর আলী ওরফে জুয়ান (২৬), মুনসুর আলী (২৫), বাবুল মিয়া (৩৫), মৃত সফর আলীর পুত্র জালাল উদ্দীন (৪০), মৃত তবারক আলীর পুত্র কামাল মিয়া (৩০) ও লোকমান মিয়া (৪০)।

মামলার এজাহারে বাদী উল্লেখ করেন, অভিযুক্ত মাদক সেবন করে রাস্তাঘাটে মাতলামি করায় এর প্রতিবাদ করেন বাদীর চাচাতো ভাই শাফিকুল আলম। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে শাফিকুল আলমকে হুমকি প্রদান করেন অভিযুক্তরা। এরপর শাফিকুলকে সুযোগে না পেয়ে শনিবার (২৭জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় নিজ বাড়ির সামনে সোনা মিয়া মেম্বারকে নিজ বাড়ির সামনে পায়চারি করা অবস্থায় তার উপর অতর্কিতভাবে হামলা করেন অভিযুক্তরা। এতে গুরুতর আহত হন তিনি। বর্তমানে তিনি মুমূর্ষু অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে গতকাল সোমবার বিকেলে হাসপাতালের আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়েছে বলে জানা যায়।

মামলা দায়েররের সত্যতা স্বীকার করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

শেয়ার করুন