জকিগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধার পরিবারকে ‘একঘরে’ রাখায় তিন মোড়ল জেল হাজতে

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি : মুক্তিযোদ্ধা ও তার মেয়ের পরিবারকে ‘একঘরে’ করে রাখার অপরাধে সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার আকাশ মল্লিক গ্রামের ৩ মোড়লকে(মুরব্বী) আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন জকিগঞ্জের সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায়।
তারা আকাশ মল্লিক গ্রামের মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে জামাল উদ্দিন (৫০), একই গ্রামের মৃত ফয়জুল মিয়ার ছেলে আব্দুল মতিন (৫৫) ও মৃত আব্দুর রজ্জাকের ছেলে বদরুল হক (৫০)। সোমবার তাদেরকে জকিগঞ্জ থানা পুলিশ আটক করে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধা ও তার মেয়ের পরিবারকে ‘একঘর’ করে রাখার অভিযোগ ছিলো। এর আগে এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধার মেয়ে রুমানা বেগম বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামী করে জকিগঞ্জ থানায় অভিযোগ দিয়েছিলেন।
মামলার এজাহারে বাদী উল্লেখ করেন, গত ১৪ ফেরুয়ারী জুম্মার নামাজ শেষে তার পরিবার ও তার পিতা যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রবের পরিবারকে ঘোষণা দিয়ে ‘এক ঘরে’ করে রাখে গ্রামের এই মোড়লরা। এরপর থেকে তাদেরকে রাস্তাঘাটে চলাচল ও ধর্মীয় কাজে মসজিদে যেতে দিচ্ছে না-এই প্রভাবশালীরা। এমনকি ছেলে মেয়েদের লেখাপড়ার জন্য তাদের বাড়ীতে গৃহ শিক্ষক আসতেও তারা বাঁধা দেয়। ফলে তাদের জীবন দুর্বিষহ হয়ে পড়ে।
অভিযুক্তরা জামায়াত শিবির কর্মী দাবী করে বাদী অভিযোগে বলেন, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে কোনঠাঁসা করতেই পরিকল্পিতভাবে তাদেরকে একঘরে করে রাখা হয়েছিলো।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জকিগঞ্জ থানার এসআই পরিতোষ পাল জানান, প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় ৩ জনকে আটক করে মামলা রুজু করা হয়েছে। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।
জকিগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায় জানান, কাউকে ‘একঘরে’ করে রাখার বিষয়টি মর্মান্তিক। সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

শেয়ার করুন