সিলেটে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে উদযাপিত হবে রবীন্দ্র জয়ন্তী

ডেস্ক রিপোর্টঃ ‘তোমার প্রকাশ হোক কুহেলিকা করি উদ্ঘাটন/সূর্যের মতন।/রিক্ততার বক্ষ ভেদি আপনারে করো উন্মোচন।/উদয়দিগন্তে ওই শুভ্র শঙ্খ বাজে/মোর চিত্তমাঝে/চির-নূতনেরে দিল ডাক/পঁচিশে বৈশাখ।’

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ‘হে নূতন’ গানে চির নতুনের মধ্যে দিয়ে তার নিজের পৃথিবীকে আগমনের শুভক্ষণকে তুলে ধরেছিলেন। আজ পঁচিশে বৈশাখ। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৯তম জয়ন্তী।

বাঙলির মানসপটে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সদাই বিরাজমান। তিনি আমাদের অহংকার। বাঙালির জীবনের যত ভাবনা, বৈচিত্র্য আছে, তার পুরোটাই লেখনী, সুর আর কাব্যে তুলে ধরেছেন কবিগুরু।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্ম ১২৬৮ বঙ্গাব্দের আজকের দিনে। মা সারদাসুন্দরী দেবী এবং বাবা বিখ্যাত জমিদার ও ব্রাহ্ম ধর্মগুরু দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর। ১৮৭৫ সালে মাত্র ১৪ বছর বয়সে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মাতৃবিয়োগ ঘটে।

কবিগুরু জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সিলেটে এক ভিন্নধর্মী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। করোনাকালে মঞ্চে আয়োজন না করে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে অনুষ্ঠান আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিলেটের রবীন্দ্র প্রেমিরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক আর লাইভ স্ট্রিম ইয়ার্ড ব্যবহার করে অনলাইনে সম্প্রচার করা হবে এই অনুষ্ঠান। ঘরে বসেই দেশ-বিদেশের শিল্পীরা গান-নৃত্য-আবৃত্তি-আলোচনাসহ নানা পরিবেশনায় অংশ নেবেন। আয়োজকেরা ধারণা করছেন, অনলাইনভিত্তিক এসব আয়োজনে অসংখ্য দর্শনার্থীরা অনুষ্ঠানগুলো পরিবেশন করবেন।

জানা যায়, সিলেটের সংস্কৃতি সংগঠন ‘শ্রুতি’ আয়োজন করেছে ‘রবি বন্দনা’ শীর্ষক অনুষ্ঠান। ফেসবুকে শ্রুতির পেজে সরাসরি অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা হবে। দুই পর্বে বিভক্ত এ আয়োজনের প্রথম পর্বের উদ্বোধন হবে বেলা সাড়ে তিনটায়। এরপর বেলা পাঁচটা পর্যন্ত এ পর্ব চলবে। দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে রাত সাড়ে আটটায়, চলবে রাত সাড়ে দশটা পর্যন্ত।

শ্রুতির এ আয়োজনে বিশিষ্ট আবৃত্তি শিল্পী শিমুল মুস্তাফা, মাহিদুল ইসলাম, ডালিয়া আহমেদ ও রানা ঠাকুর এবং সংগীতশিল্পী মকবুল হোসেন, বুলবুল ইসলাম, রাণাকুমার সিনহা, তানজীনা তমা, অভয়া দত্ত ও বিথী পাণ্ডে অংশ নেবেন। ‘একদল ফিনিক্স’ তাদের পেজে কবিগুরুকে নিয়ে তিনটি পর্বে অনুষ্ঠান সাজিয়েছে। প্রথম পর্বের অনুষ্ঠান শুরু হবে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায়। বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের নির্বাহী সদস্য সুকান্ত গুপ্তের সঞ্চালনে প্রথম পর্বের আয়োজনে রবীন্দ্রসংগীত পরিবেশন করবেন বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারের শিল্পী মহাদেব ঘোষ। এ পর্বে একই সঙ্গে আলোচনায় অংশ নেবেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জফির সেতু। এরপর রাত সাড়ে আটটায় অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে আবৃত্তি পরিবেশন করবেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট সিলেটের সভাপতি আমিনুল ইসলাম চৌধুরী লিটন ও সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ শামীমা চৌধুরী এবং গান পরিবেশন করবেন সিলেটের বিশিষ্ট রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী রাণাকুমার সিনহা। রাত ১০টায় অনুষ্ঠানের তৃতীয় পর্বে রবীন্দ্রসংগীত পরিবেশন করবেন শিল্পী সুনিধি নায়েক। এ পর্ব সঞ্চালন করবেন রেডিও জকি ফাহমিদা উর্মি।

এছাড়া সিলেট জেলা শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে রাত পৌণে নয়টায় তাদের ফেসবুক পেজে ‘শিল্প আড্ডা’ অনুষ্ঠিত হবে। কবিগুরুকে নিবেদিত এ আড্ডায় অতিথি হিসেবে থাকবেন রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী মহাদেব ঘোষ, প্রতীক এন্দ ও অমিতা দেবনাথ এবং আবৃত্তিকার নাজমা পারভীন। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করবেন জেলা সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা অসিত বরণ দাশ গুপ্ত। কবিগুরুর জন্মোৎসবে ‘মৃত্তিকায় মহাকাল’ও তাদের পেজে অনুষ্ঠান সম্প্রচার করবে। ‘এসো হে জ্যোতির্ময়’ শীর্ষক এ আয়োজনে এপার-ওপার দুই বাংলার বরেণ্য শিল্পীরা অংশ নেবেন। ছয় পর্বের এই বিশেষ অন্তর্জাল আয়োজন চলবে টানা তিনদিন ধরে। এর বাইরে ভারতের কিছু অনলাইনভিত্তিক সাংস্কৃতিক আয়োজনেও সিলেটের বিশিষ্ট শিল্পীরা অংশ নেবেন বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন