ফের ফ্লাইট শুরু করলো এমিরেটস

ডেস্ক রিপোর্ট: ২১ মে থেকে বিশ্বের ৯ টি গন্তব্যে পুনরায় যাত্রীবাহী ফ্লাইট শুরু করেছে এমিরেটস। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ভ্রমণের প্রতিটি ধাপে যাত্রী ও স্টাফদের জন্য বহুমুখী করোনা নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে এয়ারলাইনটির পক্ষ থেকে।
এমিরেটসের প্রধান পরিচালনা কর্মকর্তা আদেল আল রিধা বলেন, “ উড়োজাহাজের ভেতরে ইনফেকশনে আক্রান্ত হবার আশংকা খুবই কম, তা সত্তে¡ও চেক-ইন থেকে শুরু করে উড়োজাহাজ থেকে নামা পর্যন্ত প্রতিটি ধাপ পর্যালোচনা করে করোনা প্রতিরোধের জন্য সম্ভাব্য কোন পদক্ষেপই বাদ দেয়া হয়নি”। তিনি মনে করেন যে করোনা মহামারীকালে সবাইকে পরিবর্তিত ব্যবস্থার সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে হবে।
দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে চেক-ইন ও দুবাইগামী ফ্লাইটে ভ্রমণকালে প্রতি যাত্রী সৌজন্যমূলকভাবে একটি ‘হাইজিন কিট’ পাবেন, যাতে থাকবে মাস্ক, গøাভস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং এন্টিব্যাকটেরিয়াল ওয়াইপস বা প্যাড। এমিরেটস ফ্লাইটে যাত্রীদের জন্য মাস্কের ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।
সকল কেবিন ক্রু পিপিই পরিধান করে যাত্রীদের সেবা প্রদান করবেন। দেড় ঘন্টার বেশী দীর্ঘ ফ্লাইটে একজন কেবিন ক্রু অ্যাসিস্টেন্ট কাজ করবেন । তার দায়িত্ব হবে ৪৫ মনিট অন্তর প্রতিটি টয়লেটের পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করা । ফ্লাইট শেষে দুবাই ফিরে আসার পর কেবিন ক্রুদের কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হবে এবং ডিউটি না থাকলে ১৪ দিনের জন্য হোম কোয়ারান্টাইনে পাঠানো হবে।
বোর্ডিং সিস্টেমেও পরিবর্তন আনা হয়েছে- শেষ সারি থেকে শুরু করে পর্যায়ক্রমে প্রথম সারি পর্যন্ত যাত্রীদের বসানো হবে । বোর্ডিং এজেন্টরাও পিপিই পড়ে সেবা প্রদান করবেন। প্রতিটি ফ্লাইটের পর বোর্ডিং গেট ভালভাবে পরিচ্ছন্ন ও জীবাণুমুক্ত করা হবে।
যাত্রীরা অতি প্রয়োজনীয় সামগ্রী যেমন হাতব্যাগ, ল্যাপটপ, শিশুদের ব্যবহার্য জিনিস ছাড়া আর কিছু নিয়ে উড়োজাহাজের কেবিনে প্রবেশ করতে পারবেনে না। কেবিনে কোন ম্যাগাজিন, জার্নাল কিংবা সংবাদপত্র থাকবে না। ম্যাট্রেস, বালিশ, কম্বল, হেডফোন ও খেলার সামগ্রী জীবানুমুক্তভাবে সীল করা থাকবে। পরিবেশনার পূর্বে সকল ক্রোকারি ও কাটলারী জীবাণুমুক্ত করা হবে।
দুবাই বিমানবন্দরে প্রবেশের সময় প্রতিটি লোককে থারমাল স্কানিং করা হচ্ছে। বিমানবন্দরে মাস্ক ও গøাভস পড়া বাধ্যতামূলক। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য চেক-ইন কাউন্টার ও সামাজিক জোনসহ অন্যান্য এলাকায় বিভিন্ন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। যাত্রীদের সংস্পর্শে আসতে পারেন এমন সকল কর্মী পিপিই পরিধান করছেন।
এমিরেটসের উড়োজাহাজগুলো ‘হেপা’ এয়ার ফিল্টার সমৃদ্ধ, যেগুলো কেবিনের বায়ু থেকে ৯৯.৯৭ শতাংশ ভাইরাস, জীবাণু, ধুলিকনা ও এলার্রজেন অপসারণে সক্ষম। প্রতিটি ফ্লাইটের পর উড়োজাহাজকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে পরিচ্ছন্ন ও জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন