মানুষ বাঁচে আশায়, ভালোবাসায়-

জিবলু রহমান:করোনা আতঙ্কে মানুষ দিশেহারা। বয়স্ক ও অসুস্থদের মধ্যে বেঁচে থাকা নিয়ে শঙ্কা। আতœীয়-স্বজন-বন্ধু-বান্ধব সকলে দুরত্ব বজায় রেখে চলেছেন। মৃত্যুদের জানাজায় ও কবরস্থ করতে তেমন কেউ এগিয়ে আসছে না।
করোনা কী এসব কোনো ইঙ্গিত দিয়েছে। চিকিৎসকরা বলেছেন, দুরত্ব বজায় রেখে চলতে, হাত-মুখ পরিষ্কার রাখতে, মুখে মাস্ক রাখতে। তারাতো কাউকে দায়িত্ব থেকে সরে যাওয়ার মতো কোনো নির্দেশনা দেননি। তারা জোর দিয়ে বলেছেন, প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হতে। অনেকে বাজারে প্রতিদিন যাচ্ছেন ঠিকই; কিন্তু পরিচিত কাউকে পেলে কথাই বলতে চাচ্ছেন না, এ কেমন আচরণ?
করোনা একটি বির্পযয়। এটিকে সকলে মিলে রোধ করতে হবে। ধরুন কেউ যদি রাস্তায় কীটনাশক স্প্রেও করেন, তাহলেও তো কয়েকটি দলে ভাগ হয়ে সে কাজ করতে হবে। এটা যদি কোনো সরকারি সংস্থার কাজ, সিটি বা পৌরসভার কাজ বলে আমরা দায়িত্ব ছেড়ে ঘরে বসে থাকি তাহলে করোনাকে মোকাবেলা কঠিন হবে। সকলকে মিলে, নিজের নিরাপত্তা বজায় রেখে আমাদের করোনা বিরোধী যুদ্ধ করতে হবে। আমরা প্রতিদিন পরিশ্রম করি আগামীকাল একটি সুন্দর দিন সৃষ্টির জন্য, নিজের ভবিষ্যত নিরাপদ করার জন্য। আমরা বাঁচি আশায়, ভালোবাসায়। তাই সকলকে নিজ নিজ অবস্থানে থেকে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে হবে।
একই সাথে পাশের দুস্থদের অর্থ বা খাদ্যক্রয় করে দিয়ে আমরা তাদের দুআ অর্জনের সুযোগ কেন হাত ছাড়া করবো। সে যে ধর্মেরই হোক। আমাদের প্রতিপালক আল্লাহ আমাদের মনোভাবের পরীক্ষা নিচ্ছেন। আমাদের আল্লাহর প্রতিটি নির্দেশনার আলোকে চলতে হবে, তিনি আমাদের অবশ্যই বিপদের মধ্যে রাখবেন না। কারণ তিনি বলেছেন, বান্দা যতই অপরাধ করুক, ক্ষমার মালিক আমি, রক্ষার মালিক আমি।
হে আল্লাহ, আমাদের একটি সুন্দর পৃথিবীতে বসবাসের সুযোগ করে দিন।
জিবলু রহমান : লেখক-কলামিস্ট,সাধারণ সম্পাদক শামসুর রহমান ফাউন্ডেশন

শেয়ার করুন