সিলেটে মুনীর চৌধুরীর ‘কবর’ নাটকের সফল মঞ্চায়ন

বৃহস্পতিবার মঞ্চায়িত হবে ‘কোর্ট মার্শাল’

সিলেটের সকাল রিপোর্ট ॥ সিলেট একুশের আলোকে নাট্য প্রদর্শনীর দ্বাদশ দিন বুধবার বায়ান্ন’র পটভূমিতে মঞ্চস্থ হয় মুনীর চৌধুরীর ‘কবর’ নাটক।

‘একুশে মিছিল, একুশে হাঁটা, একুশ মানে না পথের কাঁটা’ এই স্লোগানে সন্ধ্যা ৭টায় কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে মঞ্চে নাটকটি মঞ্চায়ন করে সিলেটের নবশিখা নাট্যদল।

মহান ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে ১৭ দিনব্যাপী এ নাট্য প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে সিলেটের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অন্যতম চালিকাশক্তি সম্মিলিত নাট্য পরিষদ। বৃহস্পতিবার একই মঞ্চে মঞ্চস্থ হবে কথাকলি সিলেট’র কোর্ট মার্শাল।

কবর নাটকটি কারাগারে বসে লিখেন প্রখ্যাত নাট্যকার মুনীর চৌধুরী। এ নাটকে নেতা ও পুলিশ অফিসার চরিত্রে তৎকালীন বাংলার শাসক ও শোষক শ্রেণীর মুর্দা ফকির চরিত্রটি প্রতিবাদী ও সাহস চরিত্র। সে শহীদের লাশ দেখে বুঝতে পারে এ সাধারণ মৃত দেহ নয় কারণ লাশের গায়ে বারুদের গন্ধ। একই কবরে দাফন দিতে রাজি নয় সে। সে মৃত দেহগুলোকে পুনরায় উঠে এসে মিছিল করার আহ্বান জানায়।

এতে মাতাল অবস্থায় নেতা ও পুলিশ ভীত হয়। লাশগুলো ছায়ামূর্তি হয়ে প্রতিবাদ করে তারা মৃত নয়, তারা এই কবরে যেতে চায় না। তারা বাঁচতে চায়। ইন্সপেক্টর হাফিজ মায়ের ছদ্মবেশে ছায়ামূর্তিগুলোকে ধোকা দিতে চেষ্টা করে কিন্তু সে সফল হয় না ছায়ামূর্তিগুলো মূর্দা ফকিরের আহ্বানে পুণরায় মিছিলে যায়।

এভাবেই এগুতে থাকে ‘কবর’ নাটকের গল্প। সিলেটের নাট্যমোদী দর্শক নিস্তব্ধতায় উপভোগ করেন ‘কবর’ নাটক। নাটকটি নির্দেশনা দেন ফরিদুল ফারদিন ও সহকারী নির্দেশক ছিলেন ধ্রুবজ্যোতি দে ও তন্ময় নাথ তনু।

নাটকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন, আব্দুর রাজ্জাক খান, শরিফ উদ্দিন, রাজিব দাস, রকিবুল হাসান রুমন, অর্ণব, নদী, নাঈম, হৃদয়, মাহাদি, প্রিয়াংকা, সিঁথি, রুহেনা, তাহমিনা, শতাব্দী ও অর্জুন।

নাটক মঞ্চায়ন শেষে নাট্যদলের হাতে ফুল ও স্মারক তুলে দেন সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ ও ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, সিলেট’র সভাপতি মামুন হাসান।

এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমেদ চৌধুরী মিশু ও সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত।

১৭দিন ব্যাপী এই নাট্য প্রদর্শনীতে অংশ নিচ্ছে সিলেটের ১৬টি নাট্যদল। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টায় রিকাবীবাজার কবি নজরুল অডিটোরিয়াম মঞ্চে নাটক মঞ্চায়িত হবে। নাটকের প্রবেশপত্র হল কাউন্টারে বিকেল ৫টা থেকে পাওয়া যাবে।

১৭ দিনব্যাপী নাট্য প্রদর্শনীতে সহযোগিতা করছে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়, সিলেট সিটি কর্পোরেশন ও জেলা পরিষদ, সিলেট।

শেয়ার করুন