সালমান শাহর মৃত্যু: তদন্ত প্রতিবেদনে খুশি সামিরার বাবা

সিলেটের সকাল ডেস্ক ।। বাংলা সিনেমার তুমুল জনপ্রিয় নায়ক সালমান শাহ’র মৃত্যু নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) প্রকাশিত তদন্ত প্রতিবেদনে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন সালমানের স্ত্রী সামিরার বাবা শফিকুল হক হীরা।

তিনি বলেছেন, ‘পিবিআই তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করায় আমরা খুশি। বিষয়টি এখন মীমাংসিত হয়ে গেছে। তবে প্রায় ২৪ বছরের ভোগান্তি নিয়ে কাউকে দোষারোপ করতে চাই না। কেইস কেইসের মতোই চলেছে। শেষ পর্যন্ত ফাইনাল রিপোর্টটি সামিরার পক্ষে গেছে।’

তিনি আরও বলেন,‘আমরা জানতাম ও (সামিরা) কোনো কিছুতে ইনভলব ছিলো না। সুতরাং এতোদিন যা হয়েছে, শুধু সময়ক্ষেপন করা হয়েছে। ২৪ বছর পর আজকে প্রমাণিত হয়েছে সালমান আত্মহত্যা করেছে। এতেই আমরা খুশি। এ জন্য পিবিআইকে ধন্যবাদ জানাই।’

সোমবার ঢাকায় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পিবিআই জানায়, সালমান শাহকে হত্যা করা হয়নি। তিনি আত্মহত্যা করেছিলেন। ঢাকায় পিবিআইয়ের পক্ষ থেকে এ বক্তব্য আসার পর চট্টগ্রামে সাংবাদিকদের দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় সালমানের শ্বশুর এসব কথা বলেন।

তবে প্রকাশিত তদন্ত প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেছেন সালমান শাহর মামা আলমগীর কুমকুম। তিনি এও বলেন, ‘সামিরার বাবা আপ্রাণ চেষ্টা করে যাবেন, তিনি মেয়েকে কীভাবে সেভ করবেন। উনি খুশি হবেন রায়ে। সালমান শাহর পরিবার কি খুশি হতে পারে? আমি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিচ্ছি- ইমন (সালমান) যদি আত্মহত্যা করে থাকে, মেনে নেবো। কিন্তু এত প্রমাণ থাকার পরেও আমি এটা মানছি না।’

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর নিজ বাসা থেকে চিত্রনায়ক চৌধুরী মোহাম্মদ শাহরিয়ার ইমন ওরফে সালমান শাহ’র মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সে সময় এ নিয়ে একটি অপমৃত্যুর মামলা করেন সালমানের বাবা প্রয়াত কমরউদ্দিন আহমদ চৌধুরী।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর ধানমন্ডিতে পিবিআই সদর দফতরে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে পিবিআই প্রধান বনজ কুমার মজুমদার জানান, নায়ক সালমান শাহকে হত্যা করা হয়নি। সহশিল্পী ও চিত্রনায়িকা শাবনূরের সঙ্গে তার সম্পর্কের জের ধরে পারিবারিক কলহের কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছিলেন।

শেয়ার করুন