কোয়ারেন্টাইনে মঙ্গোলিয়ার প্রেসিডেন্ট-পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।। চীন সফর করে যাওয়ার পর মঙ্গোলিয়ার প্রেসিডেন্ট খলতমা বাতুলগা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সগবাটার দামদিনকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে (ভাইরাস সংক্রমণরোধে আলাদাভাবে রাখা) পাঠানো হয়েছে। তাদের সঙ্গে সফর করে আসা অন্য শীর্ষ কর্মকর্তাদেরও একইভাবে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

শুক্রবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) মঙ্গোলিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম মন্তসেম এ খবর জানিয়েছে। তবে রাষ্ট্রীয় হাসপাতালে নাকি প্রেসিডেন্ট ভবনে তাদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

গত জানুয়ারিতে চীনের উহান শহর থেকে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর দেশটির সঙ্গে বহির্বিশ্বের যোগাযোগ অনেকটাই বন্ধ হয়ে গেছে। চীনের সঙ্গে বাণিজ্যতো কমেছেই, তাদের রুটে ফ্লাইট পর্যন্ত বন্ধ করে দিয়েছে এয়ারলাইন্সগুলো। এমনকি চীনের নাগরিকদের তো আপাতত ঢুকতে দেয়া হচ্ছেই না, চীন ঘুরে আসা অন্য দেশের নাগরিকদেরও ঢুকতে দিচ্ছে না অনেক দেশ।

মানুষ থেকে মানুষে সংক্রমণের এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৮৫৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ৮৩ হাজার ৩৭৯ জন। মারা যাওয়া বা আক্রান্তদের বেশিরভাগই চীনের নাগরিক। তবে এ প্রাণঘাতী ভাইরাস চীনের বাইরে ছড়িয়েছে আরও ৫৩টি দেশ ও অঞ্চলে। আক্রান্ত দেশগুলোর পাশাপাশি অন্য অঞ্চলেও করোনাভাইরাস ঠেকাতে বাড়তি সতর্কতামূলক কর্মসূচি দেখা যাচ্ছে।

এই অবস্থার মধ্যেই গত বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বেইজিংয়ে যান মঙ্গোলিয়ার প্রেসিডেন্ট বাতুলগা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী দামদিন ও তাদের সঙ্গীরা। সফরে তারা চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াংয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন। সফর শেষ করে উলানবাটর পৌঁছানোর পরই তাদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়।

করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর প্রথম কোনো প্রেসিডেন্ট হিসেবে চীন সফর করেন বাতুলগা। আবার প্রথম কোনো প্রেসিডেন্ট হিসেবে কোয়ারেন্টাইনেও থাকতে হচ্ছে তাকে।

শেয়ার করুন