কচুরিপানাকে খাওয়ার উপযোগী করতে গবেষণার আহ্বান পরিকল্পনামন্ত্রীর

সিলেটের সকাল ডেস্ক ।। খাওয়ার উপযোগী কচুরিপানার জাত উদ্ভাবনের গবেষকদের পরামর্শ দিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি। তিনি বলেছেন, ‘কচুরিপানাকে খাওয়ার উপযোগী করা যায় কিনা গবেষণা করতে হবে। এখনো আমরা খেতে না পারলেও গরুতো খায়, গবেষণা করে পুষ্টি বাড়ানো যায় কিনা তা দেখা যায়।’

সোমবার বিকেলে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট ফোরামের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী কৃষি গবেষকদের এ আহ্বান জানান। এসময় মন্ত্রী কাঁঠালের আকার ছোট করে ফলটাকে সভ‌্য (সিভিলাইজড) করতেও গবেষকদের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘আপনারা কাঁঠালের আকারটা আরেকটু ছোট কীভাবে করা যায়, তা গবেষণা করতে পারেন। এখন কাঁঠালের আকার অনেক বড় হওয়ায় প্রায় ৪০ শতাংশ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। কাঁঠালের আকার ‘সিভিলাইজড’ করেন। কাঁঠালের আকার ছোট করতে পারলে এই ফলটি বহন ও ছোট পরিবার খাওয়ার জন‌্য আরও অনেক বেশি উপযুক্ত হবে।’

অনুষ্ঠানে সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের (জিইডি) সদস্য ড. অধ্যাপক শামসুল আলম ও কৃষি গবেষক এমএ রহিমকে রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট অ্যাওয়ার্ড- ২০১৯ দেওয়া হয়। এসময় বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যপক লুৎফুল হাসান ও শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ উপস্থিত ছিলেন।

-রাইজিংবিডি

শেয়ার করুন