শরিয়ত বাউলের মুক্তির দাবি সিলেটের সংস্কৃতিকর্মীদের

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: শরিয়ত বাউলের মুক্তির দাবি জানিয়েছেন সিলেটের নাট্য ও সংস্কৃতিকর্মীরা। একই সাথে ব্রাহ্মণবাড়ীয়ায় বুনন থিয়েটারের নাট্যকর্মীদের ওপর হামলার প্রতিবাদও জানিয়েছেন তারা।

মঙ্গলবার সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচিতে এসব দাবি জানান। এ প্রতিবাদী মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ, সিলেট।

কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, ‘এ দেশে নাট্য ও সংস্কৃতিকর্মীরা মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় তাদের সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, সম্প্রদায়িকতা ও দেশবিরোধী যে কোন ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সবসময় সোচ্চার।’

তারা বলেন, ‘নাটক, সঙ্গীত, বাউলগান ও অন্যান্য সাংস্কৃতিক পরিবেশনের মধ্য দিয়ে মানুষের মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত করতে দেশের সকল শিল্পীদের অবদান রয়েছে। বক্তারা বুনন থিয়েটারের নাট্যকর্মীদের উপর অন্যায়ভাবে বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা জানান এবং হামলার ঘটনার সাথে যারা জড়িত সঠিক তদন্তের মাধ্যমে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান।’

বক্তারা একই সাথে শরিয়ত বাউলের মুক্তি দাবি করে বাউলশিল্পীর প্রতি যাতে কোন অবিচার না হয় সেদিকে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানান।

সম্মিলিত নাট্য পরিষদ, সিলেট’র সভাপতি মিশফাক আহমেদ চৌধুরী মিশু’র সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের পরিচালনায় সভায় সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন জ্যৈষ্ঠ সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আল-আজাদ, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য মোকাদ্দেস বাবুল, নাট্য পরিষদের প্রাক্তন সভাপতি ও তথ্যচিত্র নির্মাতা নিরঞ্জন দে যাদু, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন বাপা’র কেন্দ্রীয় সদস্য আব্দুল করিম কিম, নাট্য পরিষদের অর্থ সম্পাদক ইন্দ্রানী সেন শম্পা।

এছাড়া সংহতি প্রকাশ করে উপস্থিত ছিলেন সিলেট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ রেনু, সিলেট প্রেস ব্রিটেনিয়ার চার্চের সভাপতি ডিকন নিঝুম সাংমা, ভূমিসন্তান বাংলাদেশের সমন্বয়ক আশরাফুল কবির, সমাজকর্মী উজ্জল রঞ্জন চন্দ এবং বিভিন্ন নাট্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যবৃন্দ।

শেয়ার করুন