প্রাইভেট কার উল্টে এমসি কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত, প্রতিবাদে বিক্ষোভ

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: নগরের টিলাগড়ে প্রাইভেট কার উল্টে এমসি কলেজ শিক্ষার্থী নয়ন দাস (২৭) নিহতের ঘটনায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে কলেজের শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার দিবাগত রাতে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানোর সময় গতিরোধকে ধাক্কা খেয়ে প্রাইভেট কারটি উল্টে যায়। এসময় নয়ন ছাড়াও গাড়িতে থাকা রুবেল নামে অপর শিক্ষার্থীও আহত হন। শনিবার তিনিও চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

এর প্রতিবাদে শনিবার দুপুরে এমসি কলেজের পেছনের ফটক সংলগ্ন সড়ক অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। তারা বলছেন, ‘টিলাগড় থেকে আম্বরখানা যাওয়ার রাস্তায় একটি ইন্সটিটিউটের সামনে কয়েকদিন আগে হঠাৎ করে স্পিড ব্রেকার ও রোড ডিভাইডার বসানো হয়েছে। এর কারণেই দুর্ঘটনায় পড়েছে কারটি। খবর পেয়ে পুলিশ ও কলেজ প্রশাসন সেখানে গিয়ে শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেন।

শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

উল্লেখ্য, শুক্রবার রাত ১১ টার দিকে স্পিটব্রেকার ক্রসিংয়ের সময় ‘বেপরোয়াভাবে’ চালানো প্রাইভেট কারটি উল্টে যায়। এতে প্রাইভেট কারের ভেতরের থাকা চার বন্ধু আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসকরা নয়নকে মৃত ঘোষণা করেন। আর নয়নকে ঢাকায় পাঠানো হয়, সেখানে তার মৃত্যু হয়।

শেয়ার করুন