লিডিং ইউনিভার্সিটিতে ‘গবেষণার রীতি ও কৌশল’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সিলেটের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটির ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ (মেজর ইন ইসলামিক ইকনোমিকস এ্যান্ড ব্যাংকিং) ও বাংলাদেশ ইসলামিক ল’ রিসার্চ এন্ড লিগ্যাল এইড সেন্টার-এর এর উদ্যোগে গবেষণার রীতি ও কর্মকৌশল, শীর্ষক কর্মশালা সম্পন্ন হয়েছে।

শুক্রবার সকাল ১০টায় একাডেমিক বিল্ডিং ২ এর গ্যালারী-০১ এ অনুষ্ঠিত হয়। ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধান ফজলে এলাহি মামুনের সভাপতিত্বে ও অত্র বিভাগের শিক্ষক মুহাম্মদ জিয়াউর রহমানের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত এ কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- লিডিং ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ কামরুজ্জামান চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন লিডিং ইউনিভার্সিটির আধুনিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. এম রকিব উদ্দিন ও বাংলাদেশ ইসলামিক ল’ রিসার্চ এন্ড লিগ্যাল এইড সেন্টারের কার্যনির্বাহি পরিচালক মো. শহীদুল ইসলাম।

রিসোর্স পারসন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামিক ল’ রিসার্চ এন্ড লিগ্যাল এইড সেন্টারের সহকারী পরিচালক ড. মো. রুহুল আমিন।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এই উৎকর্ষতার যুগে প্রতিদিন মানুষ নতুন নতুন সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে আর এসব নতুন সমস্যার সমাধানের জন্য গবেষণার গুরুত্ব অপরিসীম। গবেষণা একাডেমিক যোগ্যতা বাড়ায়।

তিনি আরো বলেন, আমাদের জীবনে এমন অনেক বিষয় নতুন বিষয় যুক্ত হচ্ছে যার সম্পর্কে কুরআন-সুন্নাহর সরাসরি নির্দেশনা বর্ণিত হয়নি। ইসলামের গতিশীলতা ও উপযোগিতার প্রশ্নে এসব সাম্প্রতিক বিষয়ে বিধান উপস্থাপনের জন্য গবেষণা কোনো বিকল্প নেই।

তিনি আরো বলেন, পবিত্র কুরআন মানবতার মুক্তির মহাসনদ। পবিত্র কুরআনের মর্ম উপলব্ধির মাধ্যমে শান্তিময় দেশ ও জাতি গঠনে আমাদেরকে কাজ করতে হবে। লিডিং ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ যুগের চাহিদা কে সামনে রেখে আধুনিক শিক্ষার পাশাপাশি ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের মাধ্যমে ইসলামের সুমহান বাণী পৌঁছে দিতে চায়। অত্র বিভাগ ইসলামের বিভিন্ন বিষয়ে গবেষণা করে মুসলমানদের মধ্যে বিরাজমান সমস্যা দূরীভূত করবে বলে আমি আশাবাদী।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ইসলামিক ল’ রিসার্চ এন্ড লিগ্যাল এইড সেন্টারের কার্যনির্বাহি পরিচালক মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, যারা আল্লাহ কিংবা তাঁর সৃষ্টি রহস্য কিংবা তাঁর ইবাদত নিয়ে চিন্তাভাবনা করেনা তাদেরকে কঠিন শাস্তির মুখোমুখী হতে হবে।

শেয়ার করুন