‘দেশের চালিকা শক্তির প্রধান উৎস রাজস্ব আয়’

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী বলেছেন, ‘একটা দেশের চালিকা শক্তির মুল উৎস রাজস্ব আয়। আগামি দিনে বাজেট আরো বাড়বে। তাই সবাইকে ভ্যাট-ট্যাক্স প্রদানের আহ্বান জানান তিনি।’

মঙ্গলবার দুপুরে নগরের একটি অভিজাত হোটেলে ভ্যাট দিবস উপলক্ষে আয়োজিত ভ্যাট^ সংলাপ ও ব্যবসায়ী সম্মাননা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বিশ্বের মানুষ শেখ হাসিনাকে দেখতে চায়, শুনতে চায়। কেননা তিনি দেশে রিমার্কেবল উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশকে কত খারাপ অবস্থা থেকে তিনি বের করে এনেছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ষোল কোটি মানুষের ৩২ কোটি হাতকে আমি কাজে লাগাতে চাই। সেটা করে দেখাচ্ছেন তিনি। ’

মাহমুদ উস সামাদ বলেন, ‘বিজয়ের এই মাসে শুধু বলেন- ‘আমার প্রথম ও শেষ প্রেম লাল সবুজের পতাকা’। তাহলে কোনো জিনিসে ভুল হবে না, অনিয়ম হবে না।’

তিনি বলেন, ‘প্রবাসীরা ট্যাক্স দিতে চান। কিন্তু জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকায় তারা ট্যাক্স প্রদানের মাধ্যমে রাষ্ট্রের উন্নয়নে অংশীদার হতে পারছেন না। তাই এ বিষয়টি নিয়ে ভাবা দরকার। আপাতত পাসপোর্টের মাধ্যমে তাদের ট্যাক্সেও আওতায় আনা সম্ভব। ’
তিনি বলেন, ‘ব্রিটিশরাও প্রথমে ভ্যাট দিতে চায়নি। পরে তারাও ঠিকই বুঝেছে দেশকে এগিয়ে নিতে ট্যাক্স-ভ্যাট দিতে হবে।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (মোসক, নিরীক্ষা ও শুল্ক গোয়েন্দা) ড. মাসুদ সাদিক বলেন, ভ্যাট প্রদান যেনো কারো কাছে হয়রানী মনে না, গর্বের মনে হয়। এ ধরণের অনুষ্ঠান ভ্যাট, ট্যাক্স প্রদানে উৎসাহ যোগাবে বলে মনে করেন তিনি।

কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট সিলেটের কমিশনার গোলাম মো.মুনীর’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সিলেটের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার তাহমিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত ডিআইজি জয়দেব ভদ্র, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোষ ঘোষ, এফবিবিসিআইয়ের পরিচালক খন্দকার শিপার আহমদ, কর কমিশনার রনজীত কুমার সাহা, সিলেট চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি আবু তাহের মো. শোয়েব।

অনুষ্ঠানে কী নোট উপস্থাপন করেন অতিরিক্ত কর কমিশনার শফিউর রহমান। শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন যুগ্ম কর কমিশনার মিনহাজ উদ্দিন পয়লহান।

এরআগে সকালে নগরের মেন্দিবাগ কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের সামনে থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালির উদ্বোধন করেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান পিএএ। র‌্যালিটি নগরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

শেয়ার করুন