ওসমানী বিমানবন্দরের রানওয়ের সম্প্রসারণ কাজ শেষে সংলগ্ন রাস্তা-ঘাটেরও উন্নয়ন করা হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট \ সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরের রানওয়ের সম্প্রসারণ কাজ আগামী-এপ্রিল মে মাসের মধ্যে শেষ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি। বিমানবন্দরের সম্প্রসারণ কাজ শেষ হয়ে গেলে বিমানবন্দরের সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধির পাশাপাশি বিমানবন্দর সংলগ্ন রাস্তা-ঘাটেরও উন্নয়ন করা হবে বলে জানান তিনি।
বৃহস্পতিবার বিকেলে দি সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র উদ্যোগে চেম্বার কনফারেন্স হলে মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, সারাদেশে পর্যায়ক্রমে ডাবল ট্র্যাক রেললাইন চালুর পরিকল্পনা রয়েছে। তিনি এও বলেন, ময়মনসিংহ বিভাগের সাথে যোগাযোগ সহজতর করার চিন্তা-ভাবনা চলছে। এর অংশ হিসাবে ঢাকা-সুনামগঞ্জ সরাসরি সড়ক যোগাযোগও স্থাপন করা হবে।
কারিগরি শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করে মন্ত্রী বলেন, সরকার ন্যুনতম ৪০% শিক্ষার্থীকে প্রযুক্তিগত শিক্ষার দিকে নিয়ে যেতে চায়। এ জন্য সারাদেশে অনেক কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপন করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পল্লী উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে কাজ করছেন। এখন গ্রাম বাংলার ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। স্বাস্থ্য সেবা এখন জনগণের হাতের নাগালে।
মন্ত্রী সিলেট অঞ্চলের ব্যবসায়ীদের বিদ্যমান সমস্যাবলী সমাধানের আশ্বাস দেন এবং চেম্বার বিল্ডিং আরো বড় পরিসরে নির্মাণের প্রস্তাব দেন।
সিলেট চেম্বারের সভাপতি আবু তাহের মো. শোয়েব এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির সভাপতি শহিদ উল মুনীর।
এছাড়াও বক্তব্য রাখেন কাস্টম্স এক্সাইজ এন্ড ভ্যাট কমিশনারেট সিলেট এর কমিশনার গোলাম ড. মোহাম্মদ মুনীর, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) নাছির উল্লাহ্ খান, সিলেট চেম্বারের সিনিয়র সহ সভাপতি চন্দন সাহা, সহ-সভাপতি তাহমিন আহমদ ও বৃত্তি সাব কমিটির আহবায়ক মো. সাহিদুর রহমান।
অনুষ্ঠানে সিলেটের সকল উপজেলার ৩টি করে স্কুল ও ১টি করে মাদ্রাসা থেকে গত বছরের পিএসসি পরীক্ষায় কৃতিত্বপূর্ণ সাফল্য অর্জনকারী ৪৮ জন কৃতি শিক্ষার্থীকে নগদ অর্থ ও সনদপত্র প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সিলেট চেম্বারের সিনিয়র অফিসার মিনতি দেবী।

শেয়ার করুন