৮ বছর পর কানাইঘাট উপজেলা আ.লীগের সম্মেলন

কানাইঘাট প্রতিনিধি :: দীর্ঘ ৮ বছর পর কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন আগামীকাল সোমবার অনুষ্ঠিত হবে। দুপুর ১২টায় কানাইঘাট পূর্ব বাজারে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন ও পরবর্তীতে পৌর শহরের ইউনিক কমিউনিটি সেন্টারে দ্বিতীয় অধিবেশনে কাউন্সিলরদের ভোটে কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হবে।

সম্মেলনে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন। এছাড়াও জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দও উপস্থিত থাকবেন বলে দলীয় সূত্র জানিয়েছে।

সর্বশেষ ২০১১ সালে কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন হয়েছিল। সেই সম্মেলনে বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক সাবেক মেয়র লুৎফুর রহমান সভাপতি ও বর্তমান কানাইঘাট পৌরসভার মেয়র নিজাম উদ্দিন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর ২০১৩ সালে লুৎফুর রহমানকে আহ্বায়ক ও অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলামকে সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক করে উপজেলা আওয়ামী লীগের ৮৪ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। অদ্যবধি পর্যন্ত এই কমিটি দলের সাংগঠনিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

এদিকে, দীর্ঘ ৮ বছর পর কানাইঘাট আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলকে কেন্দ্র করে দলের তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা পরিলক্ষিত হচ্ছে। কোন ধরনের পকেট কমিটি চাপিয়ে না দিয়ে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে দলে নতুন নেতৃত্ব বেরিয়ে আসুক তা চান দলের তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। সম্মেলনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে একাধিক আওয়ামী লীগ নেতা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তার মধ্যে সাধারণ সম্পাদক পদে অনেক তরুণ প্রার্থী হয়েছেন।

সভাপতি পদে যাদের নাম জোরে শোরে উচ্চারিত হচ্ছে তাদের মধ্যে রয়েছেন বর্তমান আহ্বায়ক সাবেক মেয়র লুৎফুর রহমান, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুল মুমিন চৌধুরী, বর্তমান কমিটির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম, যুগ্ম আহ্বায়ক অলিউর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বর্তমান কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক সাবেক ছাত্রনেতা ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ, এডভোকেট আব্দুস সাত্তার, জেলা যুবলীগ নেতা আব্দুল হেকিম শামীম, আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক কাউন্সিলর ফখরুদ্দীন শামীম, রিংকু চক্রবর্তী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আওয়ামী লীগ নেতা নাজমুল ইসলাম হারুন।

এদের মধ্যে অনেক প্রার্থীর সমর্থকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক এবং ব্যানার-বিলবোর্ডের মাধ্যমে প্রচারনা চালাচ্ছেন। এদিকে, সম্মেলনকে সফল করার জন্য একটি প্রস্তুতি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন