হাত-পা বেঁধে উল্টো করে ঝুলিয়ে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, অভিযুক্ত ইউপি মেম্বার গ্রেফতার

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: হাত-পা বেঁধে বাঁশে উল্টো করে ঝুলিয়ে এক যুবককে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর প্রধান অভিযুক্ত সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার কাজলসার ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুস সালামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভারত পালিয়ে যাওয়ার পথে পাশ্ববর্তী কানাইঘাট উপজেলার কাড়াবাল্লা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

প্রায় ১০ মাস আগে মোবাইল চুরির অপরাদ দিয়ে গিয়াস উদ্দিন নামের ওই যুবককে নির্যাতন করেন সালাম ও তার সহযোগীরা। বিষয়টি তখন প্রকাশ পায়নি। তবে বুধবার রাতে ফেসবুকে কয়েক সেকেন্ডের ভিডিওটি প্রকাশিত হওয়ার পরপরই ভাইরাল হয়। আর ভিডিওটি সিলেট জেলা পুলিশ সুপারের নজরেও আসে। তিনি থানা পুলিশকে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখার জন্য বলেন।

এর প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার সকালে নির্যাতনের শিকার গিয়াস উদ্দিন জকিগঞ্জ থানায় মামলা (নং-২৪/ তারিখ-২১/১০/২০১৯) করেন। জকিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মো. আব্দুন নাসের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ভারতে পালিয়ে যাওয়ার পথে সন্ধ্যায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার গিয়াস উদ্দিন উপজেলার কাজলসার ইউনিয়নের বড়বন্দ গ্রামের বাসিন্দা।

এ ঘটনায় আরও তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা হলেন-এবাদ আলী মেম্বার, শাহজাহান ও আনোয়ার।

ভিডিওতে দেখা যায়, একটি বাড়ির আঙিনায় গিয়াস উদ্দিনকে হাত-পা বেঁধে উল্টো করে ঝুলিয়ে নির্যাতন করছেন ইউপি মেম্বার আব্দুস সালাম। একটি লাঠি দিয়ে তিনি গিয়াস উদ্দিনের পায়ের তালুতে একের পর এক আঘাত করে যাচ্ছেন। আশপাশে লোকজন থাকলেও কেউ এগিয়ে আসেনি। উপস্থিত এক ব্যক্তি ঘটনার ভিডিওচিত্র ধারণ করলেও ভয়ে এতদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেননি।

শেয়ার করুন