হবিগঞ্জে টি আলী স্যারের নামে সড়ক উদ্বোধন

ডেস্ক রিপোর্ট \ একজন আদর্শ শিক্ষকের নামে নামকরণ করা হল হবিগঞ্জ শহরের একটি সড়কের। হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের দক্ষিণ পাশে অবস্থিত গভঃ মাধ্যমিক স্কুল ক্রসরোডটি এখন থেকে পরিচিত হবে টি আলী স্যার সড়ক হিসেবে।
শুক্রবার দুপুরে তিনকোনা পুকুরপাড় এলাকায় হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. আবু জাহির উপস্থিত থেকে সড়কের নামফলক উম্মোচন করেন। শিক্ষক ও সুধিসমাজ বলছেন, এ ধরনের উদ্যোগ আদর্শিক জীবন গঠনের জন্য প্রেরণাদায়ক হবে।
সিলেটের বিয়ানীবাজারের জন্মগ্রহণকারী শিক্ষক তজ্জমুল আলী অবিভক্ত ভারতের করিমগঞ্জ ও শিলংয়ে শিক্ষকতার পর ১৯৪৬ সালে যোগ দেন হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে। এরপর ভারত, পাকিস্তান হয়ে স্বাধীন বাংলাদেশের জন্ম হলেও তিনি এই প্রতিষ্ঠান থেকেই তিনি অবসরে যান ১৯৭৮ সালে। ছিলেন হোস্টেল সুপারও। আদর্শ জীবনযাপন ও শিক্ষার্থীদের প্রতি মমত্ববোধের কারণে সাবেক শিক্ষার্থী ও হবিগঞ্জবাসীর কাছে ছিলেন তিনি অনুকরণীয়। সাবেক অর্থমন্ত্রী মরহুম শাহ এএমএস কিবরিয়া, কিংবদন্তি গায়ক সুবীর নন্দী, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জালাল আহমেদ, নাট্য ব্যক্তিত্ব ঝুনা চৌধুরীসহ হাজারো গুণি ব্যক্তি রয়েছেন তার শিক্ষার্থীর তালিকায়।
টি আলী স্যার সড়কের উদ্বোধনের পূর্বে সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় এমপি আবু জাহির বলেন- টি আলী স্যার ছিলেন হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের একজন আদর্শ শিক্ষক। তিনি ছাত্রদের ভালবাসতেন নিজের সন্তানের মতোই। আদর্শ শিক্ষকের সকল গুণাবলীই ছিল তাঁর মধ্যে। আমরা চাই আজকের সমাজে টি আলী স্যারের মতো আদর্শ শিক্ষক তৈরি হোক। এজন্য একদিকে, টি আলী স্যারের স্মৃতিকে ধরে রাখার জন্য এবং অন্যদিকে টি আলী স্যারের নামে সড়কের নামকরণ দেখে অন্য শিক্ষকগণ যাতে টি আলী স্যারের মতো আদর্শ শিক্ষক হতে উৎসাহিত হন সেজন্য এই সড়কের নামকরণ করা হয়েছে টি আলী স্যার সড়ক।
এমপি আবু জাহির বলেন, তিনি নিজে এই সড়কটি টি আলী স্যারের নামে নামকরণের প্রস্তাব করেছিলেন। প্রস্তাবটি অনুমোদনের জন্য তিনি সরকার ও হবিগঞ্জ পৌরসভার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি আরো বলেন- হবিগঞ্জের আরো বিভিন্ন সড়ক গুণীজনদের নামে নামকরণ করা হবে।
হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি ও টি আলী স্যার ফাউন্ডেশনের সভাপতি হারুনুর রশিদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মিজানুর রহমান মিজান, সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যায়ের পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. জহিরুল হক শাকিল, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল্লাহ, হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখ আলফাজ উদ্দিন, বিকেজিসি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুধাংসু কুমার কর্মকার, হবিগঞ্জ মটর মালিক গ্রæপের সাবেক সভাপতি মোঃ ফজলুর রহমান চৌধুরী, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অ্যাডভোকেট মনসুর উদ্দিন আহমেদ ইকবাল, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক প্রতিদিনের বাণী সম্পাদক মোহাম্মদ শাবান মিয়া, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক খোয়াই সম্পাদক শামীম আহছান, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক হবিগঞ্জ এক্সপ্রেস সম্পাদক মোঃ ফজলুর রহমান, নবীগঞ্জের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আলমগীর চৌধুরী, জেলা জাসদ সভাপতি অ্যাডভোকেট তাজউদ্দিন আহমেদ সুফি, রোটারী ক্লাব অব হবিগঞ্জ সেন্ট্রালের প্রেসিডেন্ট রোটারিয়ান সিরাজুল ইসলাম, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও একুশে টিভি ও যুগান্তর প্রতিনিধি সৈয়দ এখলাছুর রহমান খোকন, ম্যাটলাইফ বাদল এজেন্সীর ম্যানেজার বাদল রায়, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও চ্যানেল আই প্রতিনিধি চৌধুরী মোহাম্মদ ফরিয়াদ, হবিগঞ্জ টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি ও নিউজটুয়েন্টিফের ও সমকাল প্রতিনিধি রাসেল চৌধুরী, হবিগঞ্জ টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এস এম সুরুজ আলী, বাপা হবিগঞ্জ জেলা সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহেল, রোটারী ক্লাব অব হবিগঞ্জ এর সাবেক সেক্রেটারী রোটারিয়ান হাফিজুর রহমান সুমন, রোটার‌্যাক্টর আইজেন নিহান শাহনূর শাহ প্রমূখ।
এছাড়া টি আলী স্যার ফাউন্ডেশনের আমন্ত্রণে সিলেটের বিশিষ্ট সাংবাদিকগণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। তাদের মধ্যে ছিলেন ইলেক্ট্রনিক জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন ইমজা’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও এটিএন নিউজের সিলেট ব্যুরো প্রধান সজল ছত্রী, ইমজার সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও চ্যানেল এস টেলিভিশন ইউকের চীফ ক্যামেরাপার্সন লিটন চৌধুরী, চ্যানেল এস টেলিভিশন ইউকের সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার এম. হাসানুল হক উজ্জল, ইমজার সাবেক সাধারণ সম্পাদক এনটিভির স্টাফ ক্যামেরাপার্সন আনিস রহমান ও এনটিভির সিলেট প্রতিনিধি ও ইমজার কোষাধ্যক্ষ মারুফ আহমেদ।
‘টি আলী স্যার সড়ক’ উদ্বোধন শেষে আদর্শ শিক্ষক টি আলী স্যারের আত্মার মাগফেরাত কামনায় মোনাজাত করেন হবিগঞ্জ কোর্ট মসজিদের খতিব মাওলানা গোলাম মোস্তফা নবীনগরী। পরে জুম্মার নামাজের পর হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মসজিদে টি আলী স্যার সড়ক নামকরণ হওয়ায় শোকরানা মিলাদ অনুষ্ঠিত হয়। মিলাদে হবিগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি হারুনুর রশিদ চৌধুরীসহ মসজিদের মুসল্লীরা অংশ নেন।
উলে¬খ্য, ১৯১৩ সালের ৩০ এপ্রিল সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার কালাইউড়া গ্রামে সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন টি আলী। স্বার্থত্যাগী টি আলী স্যার হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রায় ৩০ বছর শিক্ষকতা করেন। তন্মধ্যে স্কুলের মুসলিম হোস্টেলের তত্ত¡াবধায়কের দায়িত্ব পালন করেন ২ যুগেরও বেশি। ছাত্রদের তিনি ভালবাসতেন নিজের ছেলের মতোই। এজন্য তাকে হারাতে হয়েছে অনেক। ৬ সন্তানের মৃত্যু হয়েছে প্রায় চিকিৎসা ছাড়াই। তাদের কয়েকজনের দাফনেও উপস্থিত থাকতে পারেননি স্বার্থত্যাগী এই শিক্ষাগুরু। দীর্ঘ চাকুরি জীবনে তিনি রীতিমতো হবিগঞ্জের মানুষের সাথে এমনভাবে মিশে গিয়েছিলেন যে, সবাই তাকে হবিগঞ্জের বাসিন্দা বলেই মনে করতেন। তার আসল নাম তজম্মুল আলী। সবার কাছে তিনি টি আলী স্যার নামেই পরিচিত ছিলেন। ২০০০ সালে পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিনে টি আলী স্যার ইন্তেকাল করেন।

 

শেয়ার করুন