প্রোটিনের চাহিদা পূরণ করতে হলে পোল্ট্রি উৎপাদন বাড়াতে হবে: সিকৃবি ভিসি ড. মতিয়ার


সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ মতিয়ার রহমান হাওলাদার বলেছেন, ‘প্রোটিনের প্রধান উৎস হচ্ছে পোল্ট্রি। বাংলাদেশে প্রোটিনের চাহিদা পূরণ করতে হলে পোল্ট্রি উৎপাদন আরো বাড়াতে হবে।’ ২৩ নভেম¦র শনিবার সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে “টেকসই পোল্ট্রি উৎপাদন: বৈশ্বিক প্রত্যাশা” শীর্ষক জাতীয় কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ ও প্রকাশনা দপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর জানানো হয়। দিনব্যাপী কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ময়মনসিংহের পোল্ট্রি বিজ্ঞান বিভাগের সিনিয়র প্রফেসর ড. এস ডি চৌধুরী। কর্মশালায় দুটি বৈজ্ঞানিক সেশনে গবেষক ও বিজ্ঞানীবৃন্দ উল্লেখ করেন যে, বর্তমানে বাংলাদেশে পোল্ট্রি শিল্পে ২৫ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ রয়েছে। যেখানে ৬০ লক্ষ্য লোকের কর্মসংস্থান হয়েছে, যা গার্মেন্টস শিল্পের পরেই অবস্থান করছে। বাংলাদেশে প্রতিবছরে জনপ্রতি কমপক্ষে ১০৪ টি ডিম খাওয়ার কথা থাকলেও, খাওয়া হচ্ছে ৯৫টি। পোল্ট্রি মাংস প্রতিবছর জনপ্রতি খাওয়া হচ্ছে মাত্র ৫.৫ কেজি। দেশে উৎপাদিত পোল্ট্রি মাংসের পরিমাণ বছরে ৫৭০ মিলিয়ন মেট্রিকটন, যা চাহিদার তুলনায় কম। ২০ বছর পর পোল্ট্রির চাহিদা ৩৫ গুণ বৃদ্ধি পাবে বলে বক্তারা জানিয়েছেন। পোল্ট্রি উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য কিছু সুপারিশও এই সেমিনারে প্রদান করা হয়। যার মধ্যে রয়েছে অর্গানিক খাবারের ব্যবহার বাড়ানো, এন্টিবায়োটিকের যথেচ্ছা ব্যবহার কমানো, খামারের স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ নিশ্চিতকরণ ইত্যাদি। এসময় আরো জানানো হয় যে, ২০৩০ সালের মধ্যে ৫০ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগের মাধ্যমে প্রায় ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে পোল্ট্রি শিল্প সংশ্লিষ্ঠরা কাজ করে যাচ্ছে। সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পোল্ট্রি বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড. শাহ আহমেদ বেলাল এর সভাপতিত্তে¡ সেমিনারে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. নাথুরাম সরকার, ভেটেরিনারি, এনিম্যাল ও বায়োমেডিক্যাল সায়েন্সেস অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন প্রফেসর ড. এম রাশেদ হাসনাত, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক মোঃ আবুল কাশেম, ওয়াপসা বাংলাদেশ ব্রাঞ্চের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ এম আলী ইমাম প্রমুখ। পোল্ট্রি বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী প্রফেসর ডাঃ মোঃ কামরুল হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন একই বিভাগের প্রফেসর ড. এ.এস.এম মাহবুব। সেমিনারে দেশের ৭টি বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের প্রায় শতাধিক গবেষক, বিজ্ঞানী ও প্রতিনিধিবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

শেয়ার করুন