শাবির ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগ আটক ৫

শাবি প্রতিনিধি :: সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের সম্মান প্রথম বর্ষের ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি করায় চার কেন্দ্র থেকে পাঁচ ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে। শনিবার বিকেল পরীক্ষা চলাকালে মঈন উদ্দিন আদর্শ মহিলা কলেজ থেকে একজন, সিলেট সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে একজন, সিলেট পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট থেকে একজন এবং মদিনা মার্কেটস্থ শাহজালাল জামেয়া ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্র থেকে দুই শিক্ষার্থীকে জালিয়াতির ডিজিটাল ডিভাইসসহ আটক করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। আটকৃত পাঁচজনের মধ্যে চারজন ক্যালকুলেটরে সিম ব্যবহারের মাধ্যমে জালিয়াতি করছিল এবং অপর একজনের কাছে ডিভাইস পাওয়া যায়।

আটককৃত শিক্ষার্থীরা হলেন বগুড়া সদর এর মো.মাকসুদুর রহমানের ছেলে স্বাদ মোহাম্মদ সাহল(ভর্তি পরীক্ষার রোল:: ১৭২৪৮০০) বৃন্দাবন পাড়ার আব্দুল গফূর খলিফার ছেলে মো. মাহমুদুল হাসান(ভর্তি পরীক্ষার রোল::১৭৩৬৯৮০) সারিয়াকান্দি উপজেলার কুতুবপুর গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন এর ছেলে আহসান হাবিব(ভর্তি পরীক্ষার রোল::১৭১৩৪৯৪) সারিয়াকান্দি উপজেলার কুতুবপুর গ্রামের মো.তৌহিদুল ইসলাম দুদু এর ছেলে ইব্রাহীম খলিল(ভর্তি পরীক্ষার রোল::১৭১৩৪৮৮) এবং জাহিরুল ইসলাম খানের ছেলে মোহায়মিনুল ইসলাম খান রিফাত(১৭৩৩৭৫১)। তারা সকলেই এসপি ট্রাভেলস পরিবহনে করে সিলেট এসেছিলেন এবং সবাই বগুড়া থেকে এসেছেন।

এ বিষয়ে ভর্তি পরীক্ষার শৃঙ্খলা উপ কমিটির আহ্বায়ক ও প্রক্টর অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমদ বলেন, ‘আমাদের কাছে পূর্বের তথ্য ছিল। সে অনুযায়ী আমরা তল্লাশী চালাই, এতে তারা হাতেনাতে ধরা পড়ে। আটককৃতদের সবাইকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়েছে।’

উল্লেখ্য, ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষে শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮টিসহ সিলেট নগরীর ৩২টি কেন্দ্রে ‘এ’ ইউনিটেরর ভর্তি পরীক্ষা এবং দুপুর আড়াইটায় শাবির ৮টিসহ মোট ৪৬টি কেন্দ্রে ‘বি’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এবছর বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭০৩টি(কোটাসহ) আসনের বিপরীতে এবার আবেদন করে ৭১ হাজার ১৮ জন শিক্ষার্থী। সে হিসেবে প্রতি আসনের বিপরীতে ৪২ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষা দেয়।

শেয়ার করুন