শাবিতে নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জে বিজয়ীদের সংবর্ধনা

শাবি প্রতিনিধি:: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ সংস্থা (নাসা) এর উদ্যোগে আয়োজিত ‘নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ-২০১৮’ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়া সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দল ‘অলিক’কে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন ‘এ’ এর গ্যালারিতে জিওগ্রাফি এন্ড এনভায়রনমেন্ট বিভাগ এ সংবর্ধনার আয়োজন করে।

জিওগ্রাফি এন্ড এনভায়রনমেন্ট বিভাগের প্রধান সহকারী অধ্যাপক মো. মুয়িদ হাসানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমদ এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, স্কুল অব ফিজিক্যাল সায়েন্সের ডিন অধ্যাপক ড. মো. সাজেদুল করিম উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে আমাদের সবাইকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। শিক্ষা ও গবেষণায় বাংলাদেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শাবিপ্রবি অনেক এগিয়ে। এখানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম উজ্জ্বল করছে। নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ এ যারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে এবং যারা এতে সহযোগিতা করেছে সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন পড়ালেখার পাশাপাশি সব সময় এই ধরনের কাজে উৎসাহ দেয় ও সহযোগিতা করে থাকে। অনুষ্ঠান শেষে নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ বিজয়ী ‘টিম অলিক’ সদস্যদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেয় অতিথিবৃন্দ।

প্রসঙ্গত, বেস্ট ডেটা ইউটিলাইজেশন ক্যাটাগরিতে একটি অ্যাপ তৈরি করে অলিক এই বিজয় পেয়েছে। দলের তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে ছিলেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বিশ্বপ্রিয় চক্রবর্তী এবং অলিকের সদস্যরা হলেন পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী এসএম রাফি আদনান, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের কাজী মাইনুল ইসলাম, আবু সাবিক মেহেদী ও একই বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের সাব্বির হাসান। নাসার তথ্য ব্যবহার করে ‘লুনার ভিআর’ প্রজেক্ট নামে এই অ্যাপটি তৈরি করা হয় এবং অ্যাপটির মাধ্যমে চাঁদের পরিবেশ, তাপমাত্রা, বিভিন্ন জায়গার অবস্থা, চাঁদ থেকে সূর্যের ছবি, চাঁদ থেকে পৃথিবী দেখতে কেমন হয় এমন বিষয়গুলো দেখা যাবে।

শেয়ার করুন