বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি দিলো সিলেট চেম্বার

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ সিলেট অঞ্চল শিল্পখাতে অত্যন্ত সম্ভাবনাময়। কিন্তু বিদ্যুৎ বিভ্রাট ও গ্যাস সংযোগের অপ্রতুলতার কারণে সিলেটে শিল্পায়ন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। পাশাপাশি জনগণও চরম ভোগান্তির মধ্যে রয়েছেন। বিষয়টি বিবেচনা করে সিলেটে বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবরাহ ব্যবস্থার উন্নয়নে বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ে স্মারকলিপি পাঠিয়েছে সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি।

চেম্বার সভাপতি কর্তৃক স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘বিগত ২০১৬ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সিলেট বিভাগের বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়নে বিশেষ করে সেল্স ও ডিস্ট্রিবিউশন বিভাগে ২ হাজার ৫২ কোটি টাকা একনেকের সভায় অনুমোদন দিয়েছেন। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, সিলেট জেলার বিদ্যুৎ খাতে দৃশ্যমান কোন উন্নয়ন দেখা যাচ্ছে না। তাছাড়া ইতোপূর্বে যে কাজ গুলো করা হয়েছে তা সবই নি¤œমানের। কোন কাজই পরিপূর্ণভাবে শেষ হয়নি।’

‘এছাড়াও অতিরিক্ত বিল ইস্যু, ঘনঘন লোডশেডিং, রাত ১ টার পর ভোল্টেজ কমে যাওয়া আর অসাধু কর্মকর্তাদের দৌরাত্মে সিলেটের বিদ্যুৎ বিভাগ বিপর্যস্ত। বিশেষ করে দেখা যায় কোন এলাকার একটি বাড়িতে বা ভবনে বিদ্যুৎজনিত কোন দূর্ঘটনা ঘটলে পুরো মহল্লাকে ভোগান্তির শিকার হতে হয়। এ বিষয়ে সিলেট চেম্বারের পত্রে বিদ্যুৎ ও জ্বালানী প্রতিমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। এছাড়াও সিলেটের ব্যবসা-বাণিজ্য ও শিল্প খাতকে এগিয়ে নিতে বাণিজ্যিক ও শিল্প প্রতিষ্ঠানে সহজে গ্যাস সংযোগ ও গ্যাসের ক্যাপাসিটি বৃদ্ধি করার দাবী জানানো হয়েছে।’

সিলেট চেম্বারের পত্রে আরো উল্লেখ করা হয়েছে, ‘বিদ্যুৎ খাত জনজীবন ও ব্যবসা-বাণিজ্যের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি খাত। এ খাতের উন্নয়নে সরকারের প্রচেষ্টা আশাব্যঞ্জক। কিন্তু এখাতে দূর্নীতি আর অনিয়ম বন্ধ করতে না পারলে জনসাধারণের ভোগান্তি কমবেনা। তাই দূর্নীতি বন্ধে বলিষ্ঠ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সরকারকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।’

শেয়ার করুন