দিরাইয়ে ৫ বছরের শিশুকে হত্যা নিয়ে তোলপাড়

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের কেজাউরা গ্রামে ৫ বছরের এক শিশুকে নির্মমভাবে হত্যা নিয়ে তোলপাড় চলছে। নিহত শিশুর নাম তুহিন। সে ওই গ্রামের আব্দুল বাছের মিয়ার মেঝো ছেলে।

নিহতের নিকটাত্মীয় আবুল হোসেন জানান, রবিবার রাতে ঘুম থেকে নিয়ে তুহিনকে হত্যা করা হয়। ঘাতকরা তার কান ও লিঙ্গ কেটে নিয়ে যায়। এরপর লাশটি গাছের সাথে রশি দিয়ে বেঁধে রেখে যায়। তাকে হত্যায় ব্যবহৃত দুটি ছুরি তার পেটের আটকে দিয়েছে। স্যোশাল মিডিয়ায় বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় চলছে।

খবর পেয়ে সোমবার সকালে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় দিরাই থানার পুলিশ। লাশটি উদ্ধার করে তারা ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। লাশ উদ্ধারের সময় ঘটনাস্থলে এক হৃদয়বিদারক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। তুহিনের আত্মীয় পরিজনসহ এলাকাবাসী আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। তাদের আহাজারিতে সেখানকার পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে।

দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম নজরুল ইসলাম জানান, কাজাউড়া গ্রাম থেকে একটি শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তবে মামলার আগেই ঘাতকদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে।

এদিকে সুনামগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এসময় ডিআইওয়ান আনোয়ার হোসেন মৃধা, ডিবির ওসি কাজি মুক্তাদির হোসেন নিহতের বাবা আব্দুল বাছিরসহ চারজনকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসেন।

শেয়ার করুন