স্থপতি চৌধুরী মুশতাক আহমদের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী শনিবার

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটির স্থাপত্য বিভাগের সাবেক উপদেষ্টা স্থপতি অধ্যাপক চৌধুরী মুশতাক আহমদের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী শনিবার। ২০১৮ সালের ২১ সেপ্টেম্বর রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। তার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার বাদ আসর নগরীর শেখঘাটস্থ শেখ ছানাউল্লাহ জামে মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

চৌধুরী মুশতাক আহমদ ১৯৭৪ সালে বুয়েট থেকে স্থাপত্যবিদ্যায় ডিগ্রি নেন। ফল প্রকাশের আগেই ঢাকার একটি স্থাপত্য প্রতিষ্ঠান তাকে নিয়োগ প্রদান করে। এরপর ১৯৭৮ সালে তিনি চাকরি নিয়ে লিবিয়া যান। সেখানে ১৬ বছর চাকরির পর দেশে ফিরে প্রতিষ্ঠা করেন নিজস্ব স্থাপত্য প্রতিষ্ঠান ‘ডেভেলপমেন্ট কনসালটেন্সি সার্ভিসেস’। পরবর্তীতে যা ‘ক্রিয়েটিভ ডিজাইন সেন্টার’ নামে পরিচিতি পায়।

কর্মজীবনে চৌধুরী মুশতাক লিডিং ইউনিভার্সিটিতে শিক্ষকতার পাশাপাশি কামালবাজারস্থ ওই ইউনিভার্সিটির মূল ক্যাম্পাসের স্থপতি দলে প্রধান স্থপতির দায়িত্বে ছিলেন। এছাড়া তিনি সুবিদবাজারস্থ সিলেট প্রেসক্লাব ভবন, সোবহানিঘাটস্থ ওয়েসিস হসপিটাল, ধোপাদীঘিরপারস্থ আল ফালাহ টাওয়ার, কাজিটুলাস্থ উঁচাসড়ক মসজিদ, সোবহানীঘাট কাঁচা বাজার মার্কেটসহ বিভিন্ন স্থাপনারও স্থপতি ছিলেন।

নিজস্ব পেশার বাইরে চৌধুরী মুশতাক লেখালেখির সাথেও জড়িত ছিলেন। ২০০৯ সালে প্রকাশিত হয় তার অনুবাদগ্রন্থ ‘দ্য প্রফেট’। কাহলিল জিবরানের একই নামের বইয়ের এ অনুবাদটি সুধীমহলে ব্যাপক প্রশংসিত হয়। চৌধুরী মুশতাক আহমদের স্মরণে সম্প্রতি বাংলাদেশ স্থপতি ইন্সটিটিউট একটি পুস্তিকা প্রকাশ করেছে।

চৌধুরী মুশতাক আহমদ শিক্ষাবিদ মরহুম মুসলিম চৌধুরীর বড় ছেলে। চৌধুরী মুশতাক আহমদের ছোট দুই ভাইয়ের মধ্যে চৌধুরী মুফাদ আহমদ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সাবেক অতিরিক্ত সচিব, অপর ভাই চৌধুরী মুমতাজ আহমদ সিলেটের প্রথম পূর্ণাঙ্গ ট্যাবলয়েড দৈনিক একাত্তরের কথার সম্পাদক।

শেয়ার করুন