যুবরাজনীতিবিদ মইনুদ্দিন জালালের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উদযাপনে কমিটি গঠন

ডেস্ক রিপোর্ট:যুব রাজনীতির সংগঠক, অকালপ্রয়াত মইনুদ্দিন আহমদ জালালের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উদযাপনে সিলেটের প্রগতিশীল রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের সমন্বয়ে কমিটি হয়েছে।
গত শনিবার রাতে নগরের তালতলা এলাকার একটি রেস্তোরাঁর সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত সভা থেকে ‘মইনুদ্দিন জালাল প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উদযাপন কমিটি’ গঠন করে আহবায়ক মনোনীত করা হয়েছে। প্রবীণ বাম রাজনীতিবিদ গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি মোহাম্মদ আরশ আলীকে কমিটির আহবায়ক মনোনীত করা হয়েছে।
উদযাপন কমিটির প্রথম সভা মোহাম্মদ আরশ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের কমিউনিস্টপার্টি সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সুমনের সঞ্চালনায় সভায় মইনুদ্দিন আহমদ জালালের সহধর্মীনি সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক নাজিয়া চৌধুরী, উদীচী সিলেটের সভাপতি এনায়েত হোসেন মানিক, বাসদ সিলেটের সমন্বয়ক আবু জাফর, বাসদ (মার্ক্সবাদী) সদস্য হুমায়ূন রশীদ শোয়েব, যুব ইউনিয়ন সিলেটের সভাপতি খায়রুল হাছান, সাধারণ সম্পাদক নিরঞ্জন দাশ, আইনজীবী মোহাম্মদ মনির উদ্দিনসহ প্রয়াতের আত্মীয় ও শুভানুধ্যায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় সর্বসম্মতিক্রমে আগামী ১৮ অক্টোবর মইনুদ্দিন আহমদ জালালের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীর দিন উদযাপনে কমিটি গঠনের পর মুক্ত আলোচনার মাধ্যমে ওই দিনের কর্মসূচি চূড়ান্ত করা হয়।
কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, সিলেটের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দিনব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে মইনুদ্দিন জালালের যুব-রাজনীতি, গণদাবিসংশ্লিষ্ট আন্দোলন সংগঠিত করার বিভিন্ন আলোকচিত্র প্রদর্শন, শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন, প্রয়াতের বাড়ির একটি স্থানকে ‘জালাল অন্তর’ ঘোষণা ও স্মরণসভা।
সভার সমন্বয়কারী আনোয়ার হোসেন সুমন জানান, দিনব্যাপী এ কর্মসূচি বাস্তবায়নে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর রাত আটটায় তালতলা এলাকার হোটেল শাবানের সম্মেলনকক্ষে একটি প্রস্তুতি সভা আহবান করা হয়েছে। এ সভায় মইনুদ্দিন আহমদ জালালের রাজনৈতিক সহকর্মী, সহপাঠী ও শুভানুধ্যায়ীদের উপস্থিত থাকার আহবান জানিয়েছেন তিনি ।
গত বছরের ১৮ অক্টোবর ভারতের শিলংয়ে গিয়ে হঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে মৃত্যুবরণ করেন মইনুদ্দিন আহমদ জালাল। পেশায় আইনজীবী মইনুদ্দিন বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের সাবেক কেন্দ্রীয় সহসভাপতি পদে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে অনুষ্ঠিত যুব উৎসব উদযাপনের একজন সংগঠক ছিলেন। যুব রাজনীতিবিদি হিসেবে দেশে ও বিদেশে পরিচিতি মইনুদ্দিন আহমদ জালাল আন্তর্জাতিক পরিবেশবাদী সংগঠন ‘অঙ্গীকার বাংলাাদেশ’-এর পরিচালক মন্ডলির সদস্য ছিলেন। তাঁর নেতৃত্ব ভারতের টিপাইমুখের বাঁধের বিরুদ্ধে সিলেট অঞ্চলে প্রথম প্রতিবাদ হয়েছিল।
যুব রাজনীতির সংগঠকের পাশাপাশি একজন নদীসংগ্রামী হিসেবে পরিচিত মইনুদ্দিন আহমদ জালাল সিলেটের সাংস্কৃতিক ও সামাজিক অঙ্গনের বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে নিবেদিত ছিলেন। তাঁর অকালমৃত্যুতে প্রগতিশীল রাজনৈতিক অঙ্গন ছাড়াও সর্বমহলে শোক ছড়িয়ে পড়ে। বাংলাদেশ, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশে শোকসভার মধ্য দিয়ে মইনুদ্দিন আহমদ জালালকে একজন ‘বিনয়ী বিপ্লবী’ হিসেবে স্মরণ করা হয়।

শেয়ার করুন