‘কোম্পানীগঞ্জ রাস্তায় জেব্রা ক্রসিং চাই’

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সড়ক দুর্ঘটনায় ইমরান আহমদ কারিগরি কলেজের ছাত্র রোমান আহমদ আহত, ওসমানী মেডিকেলের কাজলশাহ রোডের রিংকি ফার্মেসির কর্মচারী ও দালাল দ্বারা কলেজের শিক্ষকদের উপর হামলার প্রতিবাদে ও ট্রাক ড্রাইভারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মঙ্গলবার স্থানীয় খাগাইল পয়েন্টে এক বিশাল মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

এহসান উদ্দিনের পরিচালনায় ও কলেজ কমিটির অন্যতম সদস্য সোনা মিয়া মেম্বারের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ইমরান আহমদ কারিগরি কলেজের অধ্যক্ষ রুহুল আমিন। প্রধান বক্তা ছিলেন কোম্পানীগঞ্জ ছাত্র পরিষদের সভাপতি রূপক চন্দ্র দাস। উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন-দক্ষিণ রণিখাই ইউপি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান রোকন, ইকবাল হোসেন ইমাদ, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, ভাইস প্রিন্সিপ্যাল কামাল হোসাইন, ইংরেজি প্রভাষক আনোয়ার হোসাইন, মাওলানা সোহেল আহমদ, নুরুল মুস্তাকিম, নুরুল মুত্তাকিন, লোকেছ আহমদ, কলেজের শিক্ষার্থী লবীব আহমদ, রেশমা বেগম, তামান্না আক্তার কলি প্রমুখ।

মানববন্ধনের বক্তারা বলেন, ‘আমরা আর কোনো লাশ চাই না, আমরা কোম্পানীগঞ্জে নিরাপদ সড়ক চাই’।

বক্তারা বলেন, ‘কিছুদিন পূর্বেই ভোলাগঞ্জে নিহত হয় চতুর্থ শ্রেণির একজন ছাত্র। কিন্তু, সেই রক্তের দাগ শুকাতে না শুকাতেই রোববার আরো দুটি লাশ দেখতে হলো। এখন কলেজে অর্ধ বার্ষিক পরীক্ষা চলছে। সবার মতো আহত রোমানেরও পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু, তাকে আজ থাকতে হচ্ছে মেডিকেলের বেডে। আমরা আর কোনো লাশ দেখতে চাই না। আমরা নিরাপদ সড়ক চাই। রাস্তায় জেব্রা ক্রসিং চাই।
বক্তারা আরো বলেন, ওসমানী মেডিকেল এলাকায় এ কলেজের শিক্ষকদের ওপর অন্যায়ভাবে হামলা করা হয়েছে। নিরাপদ সড়ক এবং হামলাকারীদের বিচার না হলে পরবর্তীতে তারা কঠোর কর্মসূচি গ্রহণের হুঁশিয়ারী দেন।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ সেপ্টেম্বর এ সড়কে দুর্ঘটনায় ২জন নিহত ও ২জন আহত হন। এ ঘটনায় আহত ইমরান আহমদ কারিগরি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র রোমান আহমদ ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

শেয়ার করুন