কারবালায় তাজিয়া মিছিলে পদদলিত হয়ে ৩১ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: ইরাকের পবিত্র কারবালায় তাজিয়া মিছিলে পদদলিত হয়ে অন্তত ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও শতাধিক মানুষ।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, গত কয়েক বছরের মধ্যে পবিত্র আশুরা পালনের সময় এটাই সবচেয়ে প্রাণঘাতী পদদলনের হওয়ার ঘটনা। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

ইরাকের রাজধানী বাগদাদ থেকে প্রায় একশো কিলোমিটার দূরে কারবালা শহর। প্রতিবছর লাখো শিয়া মুসলিম আশুরার মিছিলে যোগ দেয়। আশুরা উপলক্ষে কারবালায় ইমাম হোসেন (আ.)’র মাজার এলাকায় ৩০ লাখ মুসলমান সমবেত হয়েছেন।

ইরাকের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইফুল বদর বলেছেন, আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং তাদেরকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

হতাহতদের পরিচয় সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায় নি। ইরানের জিয়ারত সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, হতাহতদের মধ্যে কোনো ইরানি আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। খুব শিগগিরই হতাহতদের পরিচয় সম্পর্কে জানা যাবে। বর্তমানে কারবালা প্রাঙ্গনের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে ইরানের জিয়ারত সংস্থা জানিয়েছে।

মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর দৌহিত্র ইমাম হোসেনের (র.) মৃত্যুবার্ষিকী পালনের অংশ হিসেবে এ মিছিলের আয়োজন করা হয়। ৬৮০ খ্রিস্টাব্দে ইয়াজিদের বাহিনীর হাতে কারবালায় নিহত হন তিনি।

ইরাক, ইরান, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, ভারত, বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের শিয়া মতালম্বীরা এই দিনটি প্রার্থনা ও মিছিলের মধ্য দিয়ে পালন করে থাকে।

ইরাকের ইরাকের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনের সুন্নি প্রভাবিত শাসনামলে আশুরার বেশিরভাগ মিছিলই নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। তবে এখন সরকারি ছুটি ঘোষণার পাশাপাশি কারবালা যুদ্ধের স্মরণে দিবসটি উপলক্ষে নানা আয়োজন করা হয়।

তথ্যসূত্র- আল জাজিরা ও পার্সটুডে

শেয়ার করুন