সিলেট প্রেসক্লাবে কুচাই ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালামের সংবাদ সম্মেলন

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘অশালীন মন্তব্য ও অপপ্রচার’ থেকে বিরত থাকার আহবান জানিয়েছেন সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কুচাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম। ‘অসৎ উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের অপচেষ্টাকারীদেও’ এমন ‘গর্হিত আচরণ’ পরিত্যাগ করে এলাকার উন্নয়নকাজে এগিয়ে আসার অনুরোধ জানান তিনি।

সোমবার সিলেট প্রেসক্লাবে জরুরি এক সংবাদ সম্মেলনে এ আহ্বান জানিয়ে তিনি জানান, ‘তার বিরুদ্ধে গুজব, কল্পকাহিনী তৈরি করে ফেসবুকে পরিবার-পরিজন নিয়ে অশ্রাব্য গালিগালাজ করা হচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘গত ৫ আগস্ট সকালে ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের নিয়ে বৈঠক চলছিল। এমন সময় সকাল ১১ টা ৫৭ মিনিটে ০১৩১৮-৬৭৭১৩০ নম্বার থেকে তাঁর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে কল করে অপর প্রান্ত থেকে মাসুদ নামের জনৈক লোক ঢাকা থেকে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ঢাকা স্পেশাল ফোর্সের অফিসার পরিচয় দেন। ওই নম্বার থেকে ফোন করে বলা হয়, আমার ইউনিয়নের জাকির নামের একজনকে ঢাকায় গ্রেপ্তার করেছেন। তার সঙ্গে কথা বলতে বলা হয়। তিনি তখন কথা বলেন এবং অফিসার পরিচয়দানকারীকে বলেন, জাকির ভাল ছেলে, কিন্তু তার সঙ্গে কথা বলানোটা ঠিক হয়নি। আইনের কাজ, আইনের গতিতে করতে বলেন। পরবর্তীতে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা ধরণের গুজব, কল্প কাহিনী তৈরি করে পরিবার-পরিজনসহ তাকে নিয়ে নোংরা অশ্রাব্য গালিগালাজ করা হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।’

তিনি বলেন, ‘একইভাবে ওই ঘটনা সংগঠিত হওয়ার প্রায় ১৫ দিন আগে আরো দু‘টি নম্বার থেকে (০১৯০৩-১০০৮৭৯ ও ০১৭১৫ ০৮৬৫৭৫) ফোন করে র‌্যাব-৯ এর পরিচয় দিয়ে বলা হয়, জনৈক ইব্রাহিম খলিল তাদের কাছে অভিযোগ করেছেন, ইউনিয়নে চোর, ডাকাত, সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের নাকি প্রশ্রয় দিচ্ছি। প্রতিউত্তরে ইব্রাহিমের কাছ থেকে সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের নাম বলতে বলেছিলেন তিনি।’

চেয়ারম্যান আবুল কালামের মতে, ‘কতিপয় লোক একসঙ্গে জড়ো হয়ে এক টেবিলে বসে ফোনে এমন হুমকি দিচ্ছেন তাকে।’

তিনি বলেন, ‘কুচাই ইউনিয়নের উন্নয়নে তিনি দিন-রাত কষ্ট করছেন। অথচ পর্দার অন্তরালে থাকা নিজ এলাকারই কতিপয় ভাই-ভাতিজারা ঐতিহ্যবাহী একটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চাচ্ছেন।’

জাকির হঠাৎ করে বিরুদ্ধাচারণ করার বিষয়ে চেয়ারম্যান বলেন, ‘গত নির্বাচনে জাকির তার বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হন। সেই ক্ষোভ থেকে তার বিরুদ্ধাচারন করা হচ্ছে।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের সদস্য আব্দুল বাছিত, আলতাফুর রহমান, সমরেশ দেব্নাথ, রাজু আহমদ, আহমদ আলী, মো. মইন উদ্দিন, কামাল আহমদ কাবুল, শাহজাহান রহিম, সবুজ কুমার বিশ্বাস, রাজিয়া বেগম, লিলি বেগম, রিহাদ আহমদ। অন্যান্যের ,মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সেলিম আহমদ ফলিক ও কোষাধ্যক্ষ সামছুল হক মানিক প্রমুখ।

শেয়ার করুন