মশক নিধন ব্যবস্থাপনা-স্থায়ী সমাধানে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের মতবিনিময়

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: ডেঙ্গু জ্বরের মূল ঘাতক এডিস মশা সম্পর্কে নতুন কিছু তথ্য ও ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ থেকে রক্ষায় জনস্বাস্থ্য ও মশক নিধন ব্যবস্থাপনা-স্থায়ী সমাধানের লক্ষে সিলেটের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দদের সাথে মতবিনিময় সভা করেছে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল।

বৃহস্পতিবার নগরীর বারুতখানাস্থ একটি অভিজাত হোটেলের হলরুমে এডভোকেসি টিম (মাস্টার ট্রেইনার, নারীর জয়ে সবার জয় নেটওয়ার্ক মেম্বার ও রাজনৈতিক ফেলো) আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এডিস মশার প্রজনন প্রতিরোধে নিজ নিজ উদ্যোগে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকার পাশাপাশি বাসাবাড়ি, রাস্তাঘাট, কর্মস্থল পরিচ্ছন্ন রাখতে সবাইকে আহবান জানানো হয়।

মতবিনিময় সভা থেকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি কিছু সুপারিশমালা উপস্থাপন করা হয়েছে। যেগুলোর মাঝে অন্যতম হল মশকের প্রজনন স্থল, বিশেষ করে এডিস মশার প্রজনন স্থান সমূহ চিহ্নিতকরণ। সিটি করপোরেশনের বাজেটে নিয়মিত বরাদ্দের পাশাপাশি বর্ষা শুরুর প্রারম্ভে বিশেষ বরাদ্দ নিশ্চিত করা। সিটি করপোরেশন ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মধ্যে প্রয়োজনীয় তথ্য আদান-প্রদান ও সার্বিক সমন্বয়ে কমিটি গঠন। সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে প্রতি বাড়ীতে/কোন নির্ধারিত স্থানে ওয়ার্ড ভিত্তিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য আধুনিক উদ্যোগ গ্রহণ, যেমন-ভিন্ন ভিন্ন রং এর ডাস্টবিন প্রদান যাতে আবর্জনার ধরণ ভিত্তিক নির্ধারিত রং এর ডাস্টবিন এ আবর্জনা ফেলবে। সিটি করপোরেশন নিজ উদ্যোগে ও যথাযথভাবে প্রতিদিন নির্ধারিত সময়ে তা সংগ্রহ করবে। রিসাইক্লিং যোগ্য আবর্জনা ব্যবস্থাপনার জন্য রিসাইক্লিং এর ব্যবস্থা করা।

রঙ্গিন ডাস্টবিন ও রিসাইক্লিং যোগ্য আবর্জনা ব্যবস্থাপনার জন্য পাড়া ভিত্তিক বা ওয়ার্ড ভিত্তিক পরীক্ষামূলকভাবে বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ। কাউন্সিলরদের দায়িত্বে স্থানীয় জনগণে সমন্বয়ে প্রতিটি ওয়ার্ড পর্যায়ে মনিটরিং টিম গঠন যারা নির্ধারিত ওয়ার্ডেও বাড়ী সমূহের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করা সহ প্রয়োজনে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ। ড্রেনেজ সমূহ বর্ষা শুরুর প্রারম্ভেই পরিষ্কার করা এবং যেসব পাড়া/ওয়ার্ডে খোলা ড্রেন রয়েছে তা চিহ্নিত করে স্লাব বসানো নিশ্চিত করণ। খোলা স্থানে মল-মূত্র ত্যাগ না করতে উদ্যোগ গ্রহণ ও পাবলিক টয়লেট ব্যবহারে সচেতনতামূলক প্রচারণার উদ্যোগ গ্রহণ। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহে স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটির সহায়তায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে এই ব্যাপারে সচেতনতা মূলক উদ্যোগ গ্রহণ, বিশেষ করে ডেঙ্গুর প্রকোপের সময় স্কুল সমূহে বিশেষ সচেতনতা মূলক উদ্যোগ (এসেম্বলি দীর্ঘ সময় না করা/বা বন্ধ রাখা, স্কুল পরিচ্ছন্ন রাখা, ঔষধ ছিটানো ইত্যাদি)।

সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে শহরের বিভিন্ন স্থানে স্থাপিত প্রচারণামূলক মনিটরসমূহে মশক নিধন ও পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক সচেতনতামূলক প্রচারণার ব্যবস্থা গ্রহণ। সবুজ ডাস্টবিন: পচনশীল দ্রব্য, যা পরবর্তীতে জৈব সার হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। লাল ডাস্টবিন: রাবিশ দ্রব্য, যা পচনশীলও নয় আবার রিসাইক্লিংও করা যাবে না। হলুদ ডাস্টবিন: রিসাইক্লিং করা যাবে এমন দ্রব্য (কাগজ, বোতল, ক্যান, ধাতব বস্তু ইত্যাদি) জনসচেতনতায় এডিস মশার প্রজনন ও প্রতিরোধে করণীয় বিষয় গুরুত্বারোপ করা হয়।

সিলেট মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ডিআই’র রাজনৈতিক ফেলো ও ট্রেইনার মোর্শদ আহমদ মুকুলের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন সিলেট মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও ডিআই’র রাজনৈতিক ফেলো হাসনা হেনো চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহানগর মহিলা দলের যুগ্ম সম্পাদক ফাতেমা জামান রোজী, জেলা যুবলীগের সাবেক প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোহাম্মদ জাহিদ সরওয়ার, সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র অ্যাডভোকেট রোকসানা বেগম শাহনাজ, এবিএম জিল্লুর রহমান, কাউন্সিলর জাবেদ আহমদ।

শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন, ডিআই’র রিজিওনাল ম্যানেজার সুদীপ্ত চৌধুরী। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ডিআই’র রিজিওনাল কোঅর্ডিনেটর মোছাম্মদ রাহিমা বেগম। সভায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সহ দলের অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন