অবৈধ পশুর হাট নিয়ে ক্ষোভ আরিফের, দোষলেন প্রশাসনকে

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: সিলেট নগরের বিভিন্ন স্থানে বসানো অবৈধ পশুর হাট নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। আর এসব হাট বসার জন্য তিনি পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের দায়সারা মনোভাবের বিষয়টিও তোলে ধরেন।

তিনি বলেন, ‘জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন কঠোর না হওয়ায় নগরীতে অবৈধ হাটের ছড়াছড়ি।’ তিনি বলেন, ‘সিসিক জেলা প্রশাসনের কাছে ৯টি হাটের জন্য অনুমতি চেয়েছিল। কিন্তু জেলা প্রশাসন মাত্র ২টি হাটের অনুমোদন দেয়। তারপরেও নগরের বিভিন্ন স্থানে রাস্তা-ঘাটে হাট বসানো হয়েছে।’

রোববার দুপুরে শাহী ঈদগাহ মাঠের প্রস্তুতি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান। তিনি এও বলেন, বৈধ দুটু হাটের পাশাপাশি অবৈধ হাটগুলোও সিসিকের কর্মীদের পরিস্কার করতে হচ্ছে। তবে তা ২৪ ঘন্টার মধ্যেই শেষ হবে। আর সন্ধ্যার আগেই কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করার চেষ্টাও করা হবে বলে জানান তিনি।

‘সন্ধ্যার আগেই বর্জ্য অপসারণের’ বিষয়টি ব্যাখ্যা করে সিসিকের কনজারভেটিভ অফিসার হানিফুর রহমান বলেন, ‘বর্জ্য অপসারণের কয়েকটি ধাপ রয়েছে। কোরবানির পর পশুর রক্ত এবং গোবরসহ জবাইকৃত স্থানের বর্জ্য সন্ধ্যার আগেই অপসারণ করা সম্ভব হবে। তবে বিকেল থেকে চামড়ার যে বাজার বসবে, সেগুলোর বর্জ্য অপসারণ করতে ২৪ ঘন্টা লাগবে।’

এ সময় সিসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিধায়ক রায় চৌধুরীসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন