শ্রীমঙ্গলে পুকুরে বিষ প্রয়োগে মাছ মারার অভিযোগ

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে একটি পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার মাছ মেরে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ফিশারীর মালিক তার প্রতিবেশী তিন জনকে সন্দেহ করে তাদের নামে শ্রীমঙ্গল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাতে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভুনবীর ইউনিয়নের আলিশারকুল গ্রামে। পুলিশ ঘটনাটি খতিয়ে দেখছেন বলে জানা গেছে।

পুকুরের মালিক শাহাব উদ্দিন জানান, গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে দুইজন লোক আমার ফিশারীতে অনুপ্রবেশ করে চলে যায়। এসময় আমার বাবা ফিশারিতে ছিলেন। তারা পালিয়ে যাওয়ার সময় বাবা তাদের দেখতে পান। তবে ঘটনা কিছু বুঝেন না। সকাল বেলা উঠে আমরা পুকুরের সব মাছ মরে ভেসে উঠতে দেখি। পুকুরের পানিতে বিষ ফেলার জন্যই এই ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় আমার পুকুরের প্রায় ২ লাখ টাকার মাছ মারা গেছে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, গ্রামের আমার প্রতিবেশি রাসেল মিয়ার সাথে রাস্তার বিষয় নিয়ে গত শুক্রবার রাতে ঝগড়া হয়। সেই এই ঘটনা ঘটিয়েছে। এই বিষয়ে শ্রীমঙ্গল থানায় আমার প্রতিবেশী হারুন মিয়া, ফারুক মিয়া ও রাসেল মিয়ার নাম উল্লেখ করে একটি সাধারণ ডায়েরি করেন তিনি।

শ্রীমঙ্গল থানার এসআই রাব্বি জানান, তারা দুজনই প্রতিবেশী। এখন পুকুরে বিষকে ফেলছে তা কেউই দেখেনি। না দেখে কাউকে দোষারোপ করা যায় না। তাদের মধ্যে বিরোধ থাকায় একজন আরেকজনকে দোষারোপ করছেন। আর পুকুরে কে বিষ ফেললো তা আমরা তদন্ত করে দেখছি। আর দুই পক্ষকে থানায় এনে তাদের বিরোধের বিষয়টির সমাধান করার চেষ্টা করছি।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিষক্রিয়ায় ফিশারীর সিলভার, রুই, কাতলা, তেলাপিয়াসহ বিভিন্ন ধরনের মাছ মরে পানিতে ভাসছে। মরা মাছের গন্ধে পুরো এলাকায় দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়েছে। কিছু কিছু মাছ পুকরের পাড়ে উঠিয়ে রাখা হয়েছে। এছাড়াও পানির নিচে বড় বড় কিছু মাছ মরে ডুবে থাকতেও দেখা গেছে।
এদিকে, গতকাল এ বিষয়ে অভিযুক্ত রাসেল মিয়ার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে একাধিকবার কল করলেও তিনি ফোন ধরেন নি।

শেয়ার করুন