শাহপরানে পালানোর সময় ৩ ছিনতাইকারী গ্রেফতার

সিলেটের সকাল ডেস্ক :: সিলেট শহতলীর শাহপরান এলাকায় ছিনতাই করে পালিয়ে যাওয়ার সময় গাড়িসহ ৩ ছিনতাইকারীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। এ সময় তাদের নিকট থেকে ছিনতাইকৃত ৭০ হাজার টাকা ও ছিনতাইয়ে ব্যবহত ২টি রামদা ও ১টি চাকু উদ্ধর করা হয়। আটক ছিনতাইকারীরা হলো টিটুল আহমেদ রাসেল (২০), মোঃ রাসেল আহমদ (২০) এবং শাফিয়ান আলী (২০)। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এ ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। সিলেট মেট্রেপলিটন পুলিশের (মিডিয়া এন্ড কমিউনিটি সার্ভিস) অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মো. জেদান আল মুসা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, এফআইভিডিবির মাঠকর্মী কামরান আহম চৌধুরী গতকাল বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে দাসপাড়া এলাকা থেকে গ্রাহকদের নিকট থেকে আদায়কৃত ঋণের ৭০ হাজার ২২৫ টাকা নিয়ে এফআইভিডিবির ব্রাঞ্চ অফিসে ফিরছিলেন। দাসপাড়া ৬নং রোডের মুখে পৌঁছা মাত্র একটি সাদা রং এর নোহা মাইক্রোবাস ( রেজি নং-চট্ট মেট্রো-চ-১১-১১৯৮) নিয়ে ছিনতাইকারীরা তাকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে গাড়িতে তুলে নিতে চায়। পরে তাকে তুলে নিতে ব্যর্থ হয়ে তারা তার কাঁধে থাকা টাকার ব্যাগ নিয়ে বাইপাস হয়ে মুরাদপুর পয়েন্টের দিকে পালিয়ে যায়। এ সময় সে পথ দিয়ে মোটরসাইকেলে যাচ্ছিলেন মোগলাবাজার থানার এএসআই মো. ইকবাল হোসেন। কামরান চৌধুরীর অনুরোধে তিনি ছিনতাইকারীদের মাইক্রোবাসকে ধরার জন্য অগ্রসর হন। ধাওয়ায় পড়ে বাইপাস সড়কের নতুন ক্যান্টনমেন্টের বিপরীতে অবস্থিত কাঁচা লংকা রেস্টুরেন্টের সামনে গিয়ে নোহা গাড়িটি একটি সিএনজি অটো রিক্সাকে ধাক্কা দিলে দুর্ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে ছিনতাইকারীর নোহা গাড়িটি ফেলে পালিয়ে যায়।

এদিকে, সংবাদ পেয়ে শাহপরান (রহ.) থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি দল তাৎক্ষনিক ছিনতাইকারীদের ধাওয়া করে ঘটনা স্থানে উপস্থিত হয়। পরে স্থানীয় জনতার সহায়তায় বিকেল সোয়া ৫টার দিকে গোলাপগঞ্জ উপজেলার পাঁচমাইল এলাকা হতে ছিনতাইকৃত টাকাসহ ছিনতাইকারী টিটুল আহমেদ রাসেলকে (২০) আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ। পরে মীরেরচক কুইটুক এলাকা থেকে অপর দুই ছিনতাইকারী মোঃ রাসেল আহমদ (২০) এবং শাফিয়ান আলী (২০) আটক করা হয় । পরে তাদের গাড়ি থেকে ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত ২টি রামদা ও একটি চাকু উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মামলা রুজুর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

শেয়ার করুন