২৩ লাখ টাকার ভারতীয় পণ্যসহ দুই চোরাচালানী আটক

সিলেটের সকাল রিপোর্ট :: সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের দক্ষিণ সুরমার বদিকোনা এলাকা থেকে প্রায় ২৩ লাখ টাকা মূল্যমানের ভারতীয় পণ্যসহ দুই চোরাচালানীকে আটক করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে গোয়েন্দা পুলিশের টহল দলের সদস্যরা একটি কাভার্ড ভ্যান তল্লাশী করে এসব পণ্য উদ্ধারসহ তাদের আটক করে।

আটককৃতরা হচ্ছে- সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার কাকুয়া দিঘিরপাড় গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে আবু সাঈদ মিয়া (২৩) ও কদমতলী বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন ভুট্টো মিয়ার কলোনীর মনি লাল মজুমদারের ছেলে ঝুটন মজুমদার (২৮)।

মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) মো. জেদান আল মুসা এক বিজ্ঞপ্তিতে জানান, ‘মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের টহলরত টিমটি হুমায়ুন রশিদ চত্ত্বরে অবস্থানকালে আগে থেকেই উক্ত চোরাকারবারীদের আসার সংবাদ পায়। তারা ঢাকা সিলেট মহাসড়কের বদিকোনায় বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেডের সামনে অবস্থান নিয়ে সন্দেহজনক গাড়ীগুলি তল্লাশী শুরু করে। এসময় ঢাকা মেট্রো ন ১৫-৫৩৫৪ নম্বরের সন্দেহজনক একটি কাভার্ড ভ্যান তল্লাশী চৌকিতে পৌছলে তা সিগন্যাল দিয়ে থামানো হয়।’

কাভার্ড ভ্যানটি তল্লাশী করে ভিতরে ভারতের রাজস্থানের তৈরী কাভেরী মেহেদি কোন নামের ১৪ বস্তায় থাকা মোট ৪০,৩২০ প্যাকেট ভারতীয় মেহেদী পেয়ে জব্দ করা হয়। যার অনুমান মূল্য ২৩ লক্ষ ১২ হাজার ৮০০ টাকা। তাৎক্ষনিকভাবে চোরাকারবারীরা মালামালের বৈধ কোন কাগজপত্র দেখাতে পারে নি। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, উক্ত মালামাল সুনামগঞ্জের ভারতীয় সীমান্তবর্তী এলাকা দিয়ে চোরাচালানের মাধ্যমে এনে ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করার উদ্দেশ্যে পরিবহন করে নিয়ে যাচ্ছিল।

পরে, এসআই সারোয়ার হোসেন বাদী হয়ে চোরাকারবারীদের বিরুদ্ধে দক্ষিণ সুরমা থানায় এজাহার দায়ের করলে তাদের বিরুদ্ধে দক্ষিণ সুরমা থানার মামলা নং- ২৯ তারিখ- ২৫/০৬/২০১৯খ্রি. ধারা- ১৯৭৪ সনের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫-বি ধারায় মামলা রেকর্ড করা হয়।

শেয়ার করুন